বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০ ২০
দেশজুড়ে ডেস্ক
১৬ অক্টোবর ২০ ২০
৪:০ ১ অপরাহ্ণ
ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি আইনের যথাযথ প্রয়োগ দেশের জনগণ দেখতে চায়: মাওলানা মামুনুল হক

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস এর ভারপাপ্ত মহাসচিব ও যুব মজলিস এর কেন্দ্রীয় সভাপতি আাল্লামা মামুনুল হক দাঃবা। তিনি বলেন , নারীরা হলো মায়ের জাতি, ইসলাম নারীদেরকে সম্মান ও মর্যাদা দিয়েছে। সাম্রাজ্যবাদীরা নারীদেরকে ব্যবসায়িক পণ্যে রূপান্তরিত করে তাদের মান-ইজ্জত ভুলণ্ডিত করেছে। যিনা-ব্যভিচার ও ধর্ষণের অপরাধ একই। সুতরাং যিনা-ব্যভিচার ও ধর্ষণের সকল আয়োজন বন্ধ করতে হবে। সরকার ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তির আইন করেছে, এটা ভালো কথা, তবে এ আইনের যথাযথ প্রয়োগ দেশের জনগণ দেখতে চায়। এ আইন যাতে ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলন দমানোর কৌশল না হয়।

পথসভায় উস্তিত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন, তিনি আরও বলেন তিনি আরো বলেন, আমরা বহুদিন যাবত বলে আসছি দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও ধর্ষণ বন্ধ করতে ইসলামী আইন প্রয়োগের বিকল্প নেই। ইসলামী আইন প্রয়েগ না করায় ধর্ষণসহ নানাবিধ অপকর্ম মহামারির আকার ধারণ করেছে। সুতরাং সকল অপরাধ বন্ধে ইসলামী আইন প্রয়োগ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

 তিনি বলেন এখন থেকে রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামে সবাইকে এক সাথে থাকতে হবে তাহলেই সফল হবে।   

শাইখুল হাদীস রহ. ও প্রিন্সিপাল রহ. রেখে যাওয়া গণ মানুষের সংঘঠন খেলাফত প্রতিষ্ঠার গণ আন্দোলন তিনি বলেন খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষে সাংগঠনিক কার্যক্রম আরও গতিশীল ভাবে করতে হবে। 

তিনি সিলেট থেকে বরনা যাওয়ার সময় মৌলভীবাজারেরএই পথ সভায়  স্তলে পৌঁছালে আগে থেকে অফেক্ষমান  নেতা কর্মিরা তাকে স্বাগত ও শুভেচ্ছা জানান এসময়  উপস্তিত ছিলেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস এর জেলা সভাপতি মুফতি মাও হাবিবুর রহমান কাশেমী, সিনিওর সহ সভাপতি মাওঃ আবুল কালাম, সহ সভাপতি মুফতি মাওঃ হাবিবুর রহমান শামিম রাজ নগরী সহ সাধারণ সম্পাদক মাওঃ ইসলাম উদ্দিন, সহ সাধারণ সম্পাদক ডাঃ ফজলুর রহমান যুব মজলি এর সদস্য মাওঃ শামসুল ইসলাম ওলিপূরী, হুসাইন আউয়াল, শাহ মিসবাহ,আল আমিন ফুয়াদ, রহমত আলী, নুরউদ্দীন জসীম, সৈয়দ আবু হাসান, এছাড়াও বিভিন্ন ইউনিট এর কর্মি সমর্তকরা।  

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য