রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পাঠানটুলা জাহাঙ্গীনগরে দুর্বৃত্তদের আগুনে ঘর পুরে ছাই!



azajan-pic--27-03-16--1সিলেটে দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে একটি ঘর পুড়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার ভোর রাত ৩টার দিকে সদর উপজেলার টুকেরবাজারর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড পাঠান টুলা গোয়াবাড়ী জাহাঙ্গীর নগরের লাল মিয়ার বাড়িতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটে।

লাল মিয়ার স্ত্রী খুদেজা বেগম বলেন, স্থানীয় কয়েকজন দুর্বৃত্ত শনিবার ভোর রাত ৩টার দিকে ঘরে আগুন লাগায়। ঘরে আগুন দেখে বাড়ির লোকজন চিৎকার শুরু করেন। পরে আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুনে একটি ঘর ও বিভিন্ন জিনিসপত্র পুড়ে গেছে।

৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার শফিক আহমদ সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান : যে গত কয়েক দিন ধরে লাল মিয়ার পারিবারিক ঝগড়া চলছে, একই পাড়ার ও লাল মিয়া দামান সামাদ ও মতিন মিয়ার এর সাথে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে গত শুক্রবার সকালে ঝগড়া হয়, এবং শুক্রবারের লাল মিয়ার ছেলে (সিরাজ মিয়া) নগরীল হাওয়াদার পাড়া অরুণ চন্দ্রে বাড়ীতে কবুতর চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হয়। এতে তাহার ছেলে বিচার শালীশের মাধ্যোমে বন সাইন দিয়ে ছাড়া পান, এসময় ৬নং টুকের বাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন। তবে আমি ধারনা করছি যে পূর্ব বিরোদ্ধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে। তবে আমি এই ঘটনা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

এলাকার সূত্রে জানা যায় যে আগুন লাল ঘটনা ঘটে, তবে আমরা প্রতিবেশী হিসাবে আগুন নিভাতে এগিয়ে আসলে লাল মিয়া আমাদেরকে বাধা প্রদান করেন, তখন এলাকাবাসী পক্ষে মসজিদের মাইকে লাল মিয়া বাড়ী আগুন‘র খরব দেওয়া হয়, এর পর আগুন নিভাতে সক্ষম হই। তবে আমরা এলাকাবাসী মনে করছি যে তিনি নিজের ঘরে আগুন দিয়েছেন অসত উদ্যোশ্য মূলক ভাবে, এর কারণ হলো লাল মিয়ার কাছে এলাকার মতিন মিয়া ও লাল মিয়া দামান সামদ মিয়া টাকার লেনদেন নিয়ে গত শুক্রবারে সকালে ঝগড়া হয়।

এ ব্যাপারে মহানগরীর বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) গৌছুল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তিগ্রস্থ লাল মিয়া মৌখিকভাবে অভিযোগ করেছেন দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়ে তার ঘর পুড়িয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।