রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকে’র নির্বাচন জমেছে: মামুন-কামরুল-জাকির প্যানেল ঘোষণা



বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি:: বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকে’র আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে দেশ-বিদেশে নানা কৌতুহল, উৎসাহ- উদ্দীপনা লক্ষ করা যাচ্ছে। কমিউনিটির মর্যাদাশীল এ সংগঠনের দায়িত্বশীল পদে জয়ী হতে প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন। আবার ক্ষেত্রবিশেষ আত্মীয়-স্বজনের জন্য দেশ থেকে বিদেশে ভোটের ক্যাম্পেইন করার খবর পাওয়া গেছে।
জানা যায়, আগামী ২৯ এপ্রিল নির্বাচনের লক্ষে ৮ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন। বিভিন্ন পদে মোট ৭২জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

বহুকাঙ্ক্ষিত এ নির্বাচনে ৫১ পদের মধ্যে ৪৩ পদে প্রার্থী দিয়েছে মামুন-কামরুল-জাকির প্যানেল। তাছাড়া বিভিন্ন পদে স্বতন্ত্রভাবে আরো ২৯জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার লক্ষে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

এরমধ্যে সদস্যসহ কয়েকটি পদে ১৫জনের অধিক বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হওয়ার পথে রয়েছেন। অবশিষ্ট পদগুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশে জমজমাট নির্বাচনের মাধ্যমে সৎ, যোগ্য, ত্যাগী ও সমাজসেবায় নিবেদীত পরীক্ষিত প্রার্থীকে বিজয়ী হিসেবে দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন প্রবাসী বিয়ানীবাজারবাসী।

এদিকে গণমাধ্যমে মামুন-কামরুল-জাকির প্যানেলের পরিচিতি প্রকাশ করা হয়েছে।

তাদের ঘোষণা অনুযায়ী সভাপতি পদে বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে’র সাবেক কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ মামুন রশিদ (তিলপাড়া ইউনিয়ন), সাধারণ সম্পাদক পদে বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক শ্রেণী প্রতিনিধি ও বাংলাদেশ সেন্টার লন্ডনের সাবেক সদস্য মোহাম্মদ কামরুল হোসেন মুন্না (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), কোষাধ্যক্ষ পদে লন্ডনে পুলিশ বিভাগে বিরল সম্মানে ভূষিত মোহাম্মদ জাকির হোসেন (মাথিউরা ইউনিয়ন)।

তাছাড়া সহ সভাপতি পদে মোহাম্মদ দিলওয়ার হোসেন (লাউতা ইউনিয়ন), মোহাম্মদ কবির মাহমুদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আকরম আলী (তিলপাড়া ইউনিয়ন), মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেইন (কুড়ার বাজার ইউনিয়ন), মোহাম্মদ শামিম আহমদ পারভেজ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আবু বকর (মুল্লাপুর ইউনিয়ন) ও মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন (তিলপাড়া ইউনিয়ন)।

সহ কোষাধ্যক্ষ পদে মোহাম্মদ মারুফ আহমদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শফিকুল হক (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আব্দুল আলিম (তিলপাড়া ইউনিয়ন), মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন (মুড়িয়া ইউনিয়ন), সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ রুহেল আহমদ তারিন (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), প্রেস এবং প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ জুবের আহমদ (তিলপাড়া ইউনিয়ন), সহ প্রেস এবং প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ ফাজায়েল আহমদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ বাহার উদ্দিন (তিলপারা ইউনিয়ন), সদস্য সংগ্রহ সম্পাদক পদে মোহাম্মদ জাকারিয়া মাহমুদ (মুড়িয়া ইউনিয়ন), শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মোহাম্মদ মানিক হোসেন (মুড়িয়া ইউনিয়ন), সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন অপু (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), যুব ও ক্রীড়া সস্পাদক মোহাম্মদ খালেদ আহমদ (মুড়িয়া ইউনিয়ন), আইন এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ-কবির হোসেন (তিলপাড়া ইউনিয়ন), তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ শামী (শেওলা ইউনিয়ন), মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা সেলিনা বেগম (তিলপাড়া ইউনিয়ন), সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা রাজিনা বেগম (তিলপাড়া ইউনিয়ন), মাতৃভাষা ও মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সম্পাদক মোহাম্মদ আমিনুল হক (মুড়িয়া ইউনিয়ন)।

এদিকে এ প্যানেলের হয়ে কার্যকরী কমিটির সদস্য পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মোহাম্মদ ময়নুল হক (কুড়ার বাজার ইউনিয়ন), মোহাম্মদ আমিনুর রহমান (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ মাহমুদ হোসেন (মুড়িয়া ইউনিয়ন), মোহাম্মদ শাহেদ আহমদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আকবর হোসেন (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আতিক হোসেন (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ নুরুজ্জামন (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ শামীম আহমদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আব্দুল আলিম (মুল্লাপুর ইউনিয়ন), মোহাম্মদ আবু আহমদ সরওয়ার (মুড়িয়া ইউনিয়ন), মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম আলিম (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ সালেহ আহমদ (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ আক্তার হোসেন খান (বিয়ানীবাজার পৌরসভা), মোহাম্মদ শাহিদুল ইসলাম (মুড়িয়া ইউনিয়ন)।

এদিকে মামুন-কামরুল-জাকির প্যানেল বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি পাঠিয়েছেন। পাঠকদের জন্য তা হুবহূ প্রকাশ করা হলো।

“সম্মানিত বিয়ানীবাজারবাসী, আসসালামু আলাইকুম।

‘আপনারা নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, আগামী ২৯শে এপ্রিল বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতির সম্মেলন ও নির্বাচন অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে সমিতির সদস্য-সদস্যাদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে।’

‘এর লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশনার মহোদয়গনের (আসুক আহমদ, নঈম উদ্দিন রিয়াজ, আলহাজ্ব রউফুল ইসলাম, মুহিবুর রহমান মুহিব, শাহাব উদ্দিন চঞ্চল) নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী গত ১ এপ্রিল আমরা একটি প্যানেল জমা দেই।’

‘ব্যক্তি চিন্তার উর্ধ্বে থেকে আগ্রহী প্রার্থী গনের মধ্য থেকে যথা সম্ভব সবাইকে নিয়ে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ট্রেজারার, সকল সম্পাদকীয়, সহ সম্পাদকীয় ও কার্যকরী কমিটির নির্বাহী সদস্যসহ ৪৩ টি পদে একটি প্যানেল জমা দেই।’

‘আগামী ২৯ শে এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে আপনাদের সুচিন্তিত রায় চাই। আমরা নির্বাচিত হতে চাই।’

‘আঞ্চলিকতা ও ব্যক্তি স্বার্থ পরিহার করে আপনাদের সবাইকে নিয়ে আপনার আমার প্রানের সংগঠন বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতির অগ্রযাত্রায় কাজ করতে চাই । আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতা একান্ত ভাবে কাম্য।

‘সেই সাথে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রতিও রইল শুভ কামনা।”