বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আইডিয়া’র উদ্যোগে সমাজিক সংলাপ অনুষ্ঠিত



রাজনীতিতে সহিংসতা পরিহার ও শান্তিপূর্ণ সহঅবস্থান এবং অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে স্থানীয় সমস্যা চিহ্নিতকরণ পাশাপাশি সরকারি সেবা সমূহের উন্নয়নের উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে একটি সামাজিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। ডেমক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল এর সহায়তায় সংলাপটির আয়োজন করেন ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট এফেয়ার্স (আইডিয়া)।

বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) ফেঞ্চুগঞ্জ যুব সংঘ কার্যালয়ে আয়োজিত উক্ত সংলাপে অংশগ্রহনকারী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি ও সাধারন মানুষ অভিমত ব্যক্ত করেন যে, শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সকলকে একসাথে কাজ করার পাশাপাশি সবাইকে নিরোপেক্ষ ভাবে কাজ করতে হবে।

উপস্থিত রাজনৈতিক ও সিভিল সোসাইটির প্রতিনিধিগণ তাদরে বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে পারস্পরিক সুসম্পর্ক রয়েছে। তবে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো যাতে মিথ্যা মামলা, হামলার স্বীকার না হন সে বিষয়ে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের আরো সহনশীল ও শান্তিপূর্ন রাজনীতির চর্চার মনোভাব তৈরী করতে হবে।

সংলাপে উপস্থিত রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সিভিল সোইসাইটির সদস্যরা আরও মনে করেন যে, রাজনৈতিকভাবে হয়রানি মূলক মামলার যৌক্তিক সমাধান হিসাবে রাজনৈতিক সহাবস্থান নিশ্চকরণে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখবে। সরকারী সেবা সমুহের সহজ লভ্যতার জন্য সেবা সমুহরে বিবরণ প্রাপ্তি পদ্ধতি ও মূল্য সংম্বলিত বিবরণ যথাযত স্থানে প্রর্দশন করতে হবে।

সরকারী সেবা প্রাপ্তিতে ঘুষের ব্যবহার বন্ধে নাগরিদের সচেতন হতে হবে। সেবা গ্রহণে অতিরিক্ত অর্থ প্রদান থেকে বিরত থেকে ঘুষ দূর্নীতির বিরোদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। বয়স্ক ভাতা, বিধাব ভাতা ও প্রতিবন্ধি ভাতা প্রদানে ঘুষ ও দূর্নীতি পরিহার করতে হবে। যুব সমাজের প্রতিনিধিগণ বলেন যে, সাধারন মানুষের সচেতন হওয়ার পাশাপাশি যার যার অবস্থান থেকে অন্যায়ের বিরোদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। রাজনৈতিক দলগুলোর স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও হিংস্বাত্মক মনোভাব পরিহার করে পারস্পরিক সহাবস্থান এবং সহমতের ভিত্তিতে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে।

সকলের অংশগ্রহণমূলক আলোচনার ভিত্তিতে ফেঞ্চুগঞ্জের উপজেলার কিছু সমস্যা চিহ্নিত করা হয় যা অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সমাধানের জন্য রাজনৈতিক নেতাকর্মী, নাগরিক সামাজের প্রতিনিধি ও সাংবাদিক সমাজের নিকট তুলে ধরার হয়। যার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে অবৈধভাবে নদী থেকে বালু উত্তোলন, নদী ভাঙ্গন রক্ষায় কার্যকর প্রদক্ষে নেয়া, প্রধান সড়কের উন্নয়ন, রাস্তার সম্প্রসারন, স্থানীয় গাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রন ও সরকারী সেবা প্রদানে সচ্ছতা নিশ্চতকরণ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য পাঠ করেন ‘শান্তিতে বিজয়’ ক্যাম্পেইন প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী জুবায়ের আহমদ, অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল এর রিজিওনাল কো-অরডিনেটর ফরহাদ আহমেদ। উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ‘শান্তিতে বিজয়’ ক্যাম্পেইন প্রকল্পের জেলা সমন্বয়ক রোজীনা চৌধুরী, উপজেলা সমন্বয়ক কংকন কান্তি দাস. শান্তনা ঘোষ, পিয়া শ্যাম দূর্বা প্রমূখ। বিজ্ঞপ্তি