বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০ ২০
সুনামগঞ্জ ডেস্ক
১৭ অক্টোবর ২০ ২০
৮:৪৭ অপরাহ্ণ
ছাতকে বসত ঘর থেকে টাকা চুরির অভিযোগ

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে এক নারীর বসতঘরে প্রবেশ করে ব্যানেটি ব্যাগসহ নগদ ৬০ হাজার টাকা চুরি করে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে মজমা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূর বিরুদ্ধে। মজমা বেগম উপজেলার দোলারবাজার ইউনিয়নের মুক্তারপুর গ্রামের লিয়াকত আলীর স্ত্রী। 

এ ঘটনায় ১৫ অক্টোবর বিকেলে একই পরিবারের মা, ছেলে ও মেয়েকে অভিযুক্ত করে ছাতক থানাধীন জাহিদপুর পুলিশ ফাঁড়িতে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন একই গ্রামের মৃত আব্দুল হকের স্ত্রী মনতেহা বেগম মুন্নি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। 

জানা যায়, মুক্তারপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হকের স্ত্রী মনতেহা বেগম মুন্নির সাথে পূর্ব বিরোধ রয়েছে একই গ্রামের লিয়াকত আলী ও তার স্ত্রী মজমা বেগমের বিরুদ্ধে। এদের বিরুদ্ধে বিভিনś বিষয়াদি নিয়ে বিজ্ঞ আদালতে চলমান রয়েছে মামলা। 

গত ১৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় মৃত আব্দুল হকের স্ত্রী মনতেহা বেগমের বসত ঘরে প্রবেশ করে লিয়াকত আলীর স্ত্রী মজমা বেগম। সে ঘরে প্রবেশ করে বালিশের নীচে ব্যানেটি ব্যাগসহ রক্ষিত নগদ ৬০ হাজার টাকা নিয়ে চলে যেতে দেখে পরিবারের লোকজন পিছন থেকে ধাওয়া দেয়। কিন্তু চুরকে ধরতে পারেনি। টাকা ফেরত চাইলে লাঠি-সোটা নিয়ে অভিযোগকারীর উপর আক্রমন করার চেষ্টা করে। 

এসময় উপস্থিত লোকজনের সহায়তায় রক্ষা পায় অভিযোগকারী ওই নারী। এ ঘটনায় মনতেহা বেগম মুনিś বাদী হয়ে লিয়াকত আলীর স্ত্রী মজমা বেগম, তার ছেলে ফয়সল আহমদ ও মেয়ে আয়েশা বেগমকে অভিযুক্ত করে জাহিদপুর পুলিশ ফাঁড়িতে লিখিত একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, বাড়ির জায়গা থেকে জোরপূর্বক বাঁশ, গাছ ও ঘরের ছালার টিনসহ অন্যান্য জিনিসপত্র চুরি করত এ অভিযুক্তরা। প্রতিবাদ করলে অশ্লিল গালিগালাজ, ঝগড়া ও মারপিট করত। বিষয়টি নিয়ে বারাবারি করা হলে অভিযুক্তরা হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন বাদী ও তার পরিবার। এদিকে অভিযোগ প্রাপ্তি ও ঘটনাস্থল পরিদর্শনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাহিদপুর পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই নূর আহমদ।

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য