শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০ ২০
আইন-অপরাধ ডেস্ক
১ আগস্ট ২০ ২০
৭:৪২ অপরাহ্ণ
ওসমানীনগরে ৫ হাজার টাকার জন্য প্রবাসী নারীকে খুন, ঘাতক গ্রেফতার

ওসমানীনগর প্রতিনিধি :: সিলেটের ওসমানীনগরে ৫ হাজার টাকার জন্য যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিমা বেগম আমিনাকে খুন করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (৩১ জুলাই) সকালে প্রবাসী নারীর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধারের পরপরই অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত আব্দুল জলিল ওরফে কালু (৩৯) মিয়া নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে উপজেলার নগরীকাপন গ্রামের মৃত আব্দুল কাছিমের ছেলে। সে পরিবার নিয়ে গোয়ালাবাজারের করনসী রোডে বাসা ভাড়া নিয়ে বাস করত।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, গত ২৮ জুলাই ঈদ উপলক্ষে বিকেলে ৫ টার দিকে প্রবাসী রহিমা বেগম আমিনার কাছে ৫ হাজার টাকা ধার চায় কালু। এসময় আমেনা কালুকে টাকা ধার না দিয়ে গালিগালাজ করেন। এতে কালু চরম অপমানিতবোধ করে আমেনা হত্যা করার লক্ষ্য স্থির করে লুকিয়ে আমেনা বেগমের ঘরে প্রবেশ করে।

এরপর আমেনা ঘরে প্রবেশ করতেই পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক কালু মিয়া বাঁশের লাঠি দিয়ে আমেনার মাথায় আগাত করে। এতে আমেনা বেগম অজ্ঞান হয়ে পড়েন। এরপর আব্দুল জলিল কালু পুনরায় বসতঘরে থাকা একটি বটি দা দিয়ে রহিমা বেগম আমেনার গলা কেটে হত্যা করে। পরে লাশ বাথরুমের রেখে দরজা বন্ধ করে দেয়। আর আমেনার বসতঘরের মেইন কেচি গেইট ঘরে থাকা ৩ টি তালা দিয়ে বন্ধ করে বাড়ি হতে বের হয়ে যায়।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (৩১ জুলাই) সকালে গোয়ালাবাজারস্থ করনসী রোডে যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিমা বেগম আমিনার নিজস্ব বাসা থেকে তার গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত আমিনা উপজেলার উমরপুর ইউনিয়নের কটালপুর গ্রামের মৃত আখলু মিয়ার স্ত্রী। তিনি গোয়ালাবাজারস্থ নিজস্ব বাসায় একা থাকতেন।

ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক আটকের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নিহতের ভাই আব্দুল কাদির বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ ২৪ ঘন্টার মধ্যে আসামিকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনার সাথে সে জড়িত ছিল বলে স্বীকার করেছে। সে একাধিক খুনসহ চুরি, ডাকাতির সাথে জড়িত বলে জানা গেছে।

রোববার আদালতে আসামীকে সোপর্দ করা হবে।

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য