সোমবার, নভেম্বর ৩০ , ২০ ২০
ক্লাব সংগঠন ডেস্ক
২৮ অক্টোবর ২০ ২০
২:৫১ অপরাহ্ণ
মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ব্যাঙ্গ চিত্রের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দুই সংগঠনের মানববন্ধন

ফ্রান্সে প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে কার্টুন ও ব্যাঙ্গ চিত্রের প্রতিবাদে ন্যাশনালিষ্ট অনলাইন এ্যাকটিভিষ্ট ফোরাম, সিলেট ও দিরাই-শাল্লা ইয়ুথ ফোরাম সিলেটের যৌথ উদ্যোগে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (২৮ অক্টোবর) সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

ন্যাশনালিষ্ট অনলাইন এ্যাকটিভিষ্ট ফোরাম সিলেটের সভাপতি কামরান হোসেন হেলালের সভাপতিত্বে ও দিরাই-শাল্লা ইয়ুথ ফোরামের সভাপতি মিজানুর রহমান পাবেলের পরিচালনায় মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি রেজাউল হাসান কয়েছ লোদি, বক্তব্য রাখেন জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মকসুদ আহমদ।

অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য ফকরুল ইসলাম রুমেল, দিরাই-শাল্লা ইয়ুথ ফোরামের উপদেষ্টা মহসিন সরদার, মাহবুবুল হাসান মনি, জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য হাসান মঈন উদ্দিন আহমদ মইনুল, কামরুল হাসান, সাইদুর রহমান, দিরাই-শাল্লা ইয়ুথ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক তাহসিন মেহেদি প্রিন্স, কৃষ্ণ ঘোষ, নির্ঝর রায়, মকবুল হোসেন, ন্যাশনালিষ্ট এডুকেশন ট্রাষ্টের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকী, হুমায়ুন রশিদ, সজিব আহমেদ, আলেক হোসেন, জুনায়েদ আহমেদ রাফি, তাজুর ইসলাম, মেহদী হাসান, ফয়সল আমিন, নয়ন, হাবিব প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী বলেন, আমাদের সর্বশ্রেষ্ট নবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ফ্রান্সের সরকারের পৃষ্ট পোষকতায় ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন ও নোংরামীর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। এর আগেও ফ্রান্স অনেক নোংরামী করেছিলো হযরত মুহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে। কিন্তু মুসলমান বিশ্ব একত্রিত হয়ে প্রতিবাদ করায় ফ্রান্স পিছু হটতে বাধ্য হয়। ৯০ভাগ মুসলমানের দেশ হয়েও আমাদের প্রধানমন্ত্রী কোন ধরনের প্রতিবাদ ও বিবৃতি না দেয়ায় আমরা সকলেই হতাশ ও ক্ষুব্ধ। জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মকসুদ আহমদ বলেন- মুসলিম দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েও হযরত মুহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র ও নোংরমির প্রতিবাদ না করলে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আমরা সকল মুসলমান ভাইদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে বাধ্য হব। 
 

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য