বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০ ২০
স্মরণীয় দিন ডেস্ক
৫ নভেম্বর ২০ ২০
১১:২৭ পূর্বাহ্ণ
প্রকৌশলী আইয়ূব আলী একজন অসাম্প্রদায়িক মানুষ ছিলেন: ব্যারিস্টার আরশ আলী

৬০ এর দশকের তুখোড় ছাত্রনেতা, গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সিলেট জেলার শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রকৌশলী আইয়ুব আলী’র আকস্মিক মৃত্যুতে গণতন্ত্রী পার্টি সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার উদ্যোগে ৪ নভেম্বর বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় তালতলাস্থ দলীয় কার্যালয়ে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

শোক সভায় গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট মহানগরের আহবায়ক মাছুম আহমদের সভাপতিত্বে এবং জেলার যুগ্ম সম্পাদক গোলজার আহমদের পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি জননেতা ব্যারিস্টার মোহাম্মদ আরশ আলী।

শোক সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবল চন্দ্র পাল, ওয়ার্কার্স পার্টির সিলেট জেলার সভাপতি কমরেড সিকান্দর আলী, বাসদ মার্ক্সবাদী সিলেট জেলার আহবায়ক কমরেড উজ্জ্বল রায়, বাসদ সিলেট জেলার সমন্বয়ক কমরেড আবু জাফর,বাসদ মার্ক্সবাদী পাঠচক্র ফোরাম সিলেট জেলার সমন্বয়ক সুশান্ত সিনহা সুমন, গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক জুনেদুর রাহমান চৌধুরী, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্ক্সবাদী) সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক ডাঃ হরিধন দাস, গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট মহানগর শাখার যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক প্রাণকান্ত দাস, গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট মহানগর শাখার সদস্য সচিব শ্যামল কাপালী, বাসদ মার্ক্সবাদী সিলেট জেলার সদস্য এডভোকেট হুমায়ূন রশিদ সোয়েব, বাসদ মার্ক্সবাদী পাঠচক্র ফোরাম সিলেট জেলার সদস্য এডভোকেট রনেন সরকার রনি, বাসদ সিলেট জেলার সদস্য প্রণব জ্যোতি পাল, গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট জেলার দপ্তর সম্পাদক ও জাতীয় যুব ঐক্য সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান খোকন, সদস্য শংকর ঘোষ প্রমুখ। 

শোক সভায় জনাব আইয়ুব আলী সাহেবের পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন তাঁর সহধর্মিণী বেগম রওনক জাহান, পুত্র সিদ্দিকী জালাল উদ্দীন আল বিরুনী রাহুল, কন্যা ইয়াসমিন সিদ্দিকা ঋতু, শুভাকাক্সক্ষী হাজী আব্দুস সাত্তার প্রমুখ। 

বক্তারা বলেন, জনাব আইয়ুব আলী সরকারি চাকরি জীবনে কোন রাজনৈতিক সাংগঠনিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ না করেও গোপনে সকল বাম প্রগতিশীল নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ রাখতেন এবং ব্যক্তিগত ভাবে রাজনৈতিক সহযোগিতা করতেন। তিনি রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে যুক্ত ছিলেন। চাকুরী জীবনে তাঁর কোন দুর্ণাম ছিলো না। তিনি অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি তাঁর রাজনৈতিক আদর্শ থেকে বিচ্যুত হননি।
বক্তারা আরও বলেন,  জনাব আইয়ুব আলী মানবতাবাদী অসাম্প্রদায়িক সমাজতান্ত্রিক চেতনার অধিকারী ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে সামাজিক রাজনৈতিক জীবনে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা পূরণ হবার নয়। 

সভার শুরুতে আইয়ুব আলী’র স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। 
 

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য