মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০ ২০
মৌলভীবাজার ডেস্ক
৪ নভেম্বর ২০ ২০
১২:১৩ অপরাহ্ণ
কমলগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর উপর হামলার প্রতিবাদে বিশাল মানববন্ধন

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, সাবেক উপজেলা ও ইউপি সদস্যা, আওয়ামী লীগ নেত্রী নুরজাহান ইসলামের উপর মধ্যযুগীয় নৃশংস সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) বিকাল ৪টায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শহীদনগর বাজারে পতনউষার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সম্মুখে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা হয়।
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি আজিজুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ইউপি সদস্য নারায়ণ মল্লিক সাগরের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিলকিস বেগম, ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড সিকন্দর আলী, অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম, পতনউষার ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী তওফিক আহমদ বাবু, বীর মুক্তিযোদ্ধা নির্মল দাস, প্রভাষক মো. আব্দুল আহাদ, প্রভাষক শাহাজান মানিক, বিএনপি নেতা অলি আহমদ খান, ওমর মাহমুদ আনসারী, মাওলানা আব্দুল মুহিত হাসানী, ইউপি সদস্য আশিক মিয়া, ফটিকুল ইসলাম রাজু, শাহাজান আহমদ, আহত আওয়ামীলীগ নেত্রীর ছেলে সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের দপ্তর সম্পাদক কামরুল আই রাসেল ও পতনউষার ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা বদরুল ইসলাম রুবেল প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কামান্ড সন্মেলন প্রস্তুতি কমিটি মৌলভীবাজার জেলা শাখার সদস্য সচিব মো. শাহাজান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কামান্ড জুড়ি উপজেলার সভাপতি জুবের আহমদ জবলু, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কামান্ড কুলাউড়া উপজেলার সদস্য সচিব সালাউদ্দিন আহমদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান আলতা, আসিফ নেওয়াজ রনি, কামরান আহমদ, আব্দুল কাদির সাজু, যুবলীগ নেতা আবুল বশর জিল্লুল, আব্দুল ওয়াদুদ রিপন, শামসুর রহমান, হুমায়ুন কবির, আছির আলীসহ এলাকার বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, হামলাকারীকে অনতিবিলম্বে গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনতে হবে। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার না করলে বৃহত্তর আন্দোলনের কথাও বলেন বক্তারা। এ সময় বড় মেয়ে শাহনাজ বেগম রিপা মায়ের উপর হামলার বিচার চেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। 
উল্লেখ্য, গত ২০ অক্টোবর বিকালে পতনঊষার ইউনিয়নের ধুপাটিলা গ্রামের করামত উল্ল্যার ছেলে প্রবাস ফেরত জসিম মিয়া (৪২) লোহার রড দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে নুরজাহান ইসলামকে (৫৬) রক্তাক্ত জখম করে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ও পরে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হলে ১৪দিনেও হামলাকারীকে গ্রেপ্তার হয়নি।
কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে হামলাকারী পলাতক রয়েছে। তাকে ধরতে সর্ব্বোচ চেষ্টা চালানো হচ্ছে।
 

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য