মঙ্গলবার, জুন ২, ২০ ২০
জাতীয় ডেস্ক
৬ এপ্রিল ২০ ২০
৩:২৯ অপরাহ্ণ
আইইডিসিআর জানালো আক্রান্ত ৩৫, মৃত্যু ৩

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংযে এ তথ্য জানান রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। যদিও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক দুপুরে এ মৃতের সংখ্যা চারজনের কথা জানিয়েছেন।
ভিন্ন তথ্য নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টিও হয়েছে। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন এখানে কোনো বিভ্রান্তি নেই। স্বাস্থ্যমন্ত্রী তখন একটি ‘ক্লোজ মিটিং’-এ ছিলেন। তাকে আইইডিসিআরের পক্ষ থেকেই তথ্য দেয়া হয়েছিল। একটি নামের
বানান নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছিল।
এখন যেটা বলা হয়েছে এটাই চূড়ান্ত।

এদিকে দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআর পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ জন। এ নিয়ে মোট ১২৩ জন করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়া নতুন ৩জনসহ মোট মৃতের সংখ্যা ১২ জনে দাঁড়িয়েছে।
মীরজাদী আরো জানান, যে তিনজন মারা গেছেন তাদের মধ্যে দুজনই নারায়ণগঞ্জের। বাকি একজন ঢাকার।
এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী দুপুরে জানান গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। করোনা ভাইরাস নিয়ে সরকারি বেসরকারি স্বাস্থ্য প্রতিনিধিদের সঙ্গে ওই বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, করোনা প্রতিরোধে গঠিত জাতীয় কমিটির প্রধান হলেও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয় ছাড়া অন্য কোন সিদ্ধান্তের বিষয়ে অবহিত করা হয় না।
দেশে আরো এক লাখ কিট এসেছে বলে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা পরীক্ষায় ১ লাখ কিট দেশে চলে এসেছে। আরও কিছু দেশের পথে রয়েছে। চিকিৎসকদের সুরক্ষায় প্রচুর পিপিই ও মাস্ক তৈরি হচ্ছে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, করোনা থেকে দেশকে রক্ষায় সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। যার যা দায়িত্ব তা সঠিকভাবে পালন করার আহ্বান জানান তিনি।
মন্ত্রী বলেন, করোনা চিকিৎসায় জেলা পর্যায়ে আইসোলেশন ওয়ার্ডসহ বেশ কয়েকটি হাসপাতাল প্রস্তুত আছে।
প্রসঙ্গত, গত ৮ই মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। শুরুর দিকে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক কম থাকলেও ধীরে ধীরে তা বাড়তে থাকে। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১১৭। মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের।
উল্লেখ্য, গেল বছরের ডিসেম্বররের শেষ দিকে চীনের উহান থেকে নভেল করোনা ভাইরাস ছড়ায়। এরপর ধীরে ধীরে সারা বিশ্বে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। এখন পর্যন্ত বারো লাখের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, সারা বিশ্বে ৬৯ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য