বুধবার, ২২ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

ছাতকের রাধানগর মোহাম্মদিয়া দাখিল মাদরাসায় দু:সাহসিক চুরি সংঘঠিত



ঘটনার এক সপ্তাহেও শনাক্ত হয়নি চোর

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকের রাধানগর মোহাম্মদিয়া দাখিল মাদরাসার অফিস কক্ষে এক দু:সাহসীক চুরি সংগঠিত হয়েছে। ঘটনাটি ৬ অাগষ্ট গভীর রাতে ঘটেছে। সংঘবদ্ধ চোরেরা অফিসের দরজার তালা ও রুমে প্রবেশ করে অালমিরার তালা ভেঙ্গে নগদ টাকা এবং মুল্যবান কাগজপত্র নিয়ে যায়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার ছৈলা অাফজলাবাদ ইউনিয়নের রাধানগর মোহাম্মদিয়া দাখিল মাদরাসাটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অত্যন্ত সুনামের সাথে পরিচালিত হয়ে অাসছে। ইতো মধ্যে মাদরাসাটি এমপিওভুক্তির যাবতীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছিল। এসমস্থ ফাইলপত্রসহ অন্যান্য কাগজপত্র রাখা ছিল অফিস কক্ষের অালমিরাতে।

নগদ টাকাও ছিল। সংঘবদ্ধ চুরেরা ঘটনার রাতের যে কোন সময় এ দু:সাহসিক চুরি সংঘঠিত করে। পরের দিন ৭ অাগষ্ট ছাতক থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন মাদরাসার সুপার মাওলানা শামসুল কবির মিছবাহ চৌধুরি। এর প্রেক্ষিতে ওইদিন থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। কিন্তু ঘটনার এক সপ্তাহ অতিবাহিত হলেও অাজ পর্যন্ত চোরকে শনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ। উদ্ধারও হয়নি নগদ টাকা ও মুল্যবান কাগজপত্র।

স্থানীয় একাধিক সুত্রে জানায়, দীর্ঘদিন ধরে মাদরাসার অাশপাশে রমজান অালীর ছেলেদের দুটি দোকান ও উসমান অালীর একটি দোকানে টাকা দিয়ে দিনরাত সমান তালে গাফলা এবং ক্যারেমের পাশাপাশি শিলং তীর খেলার জমজমাট অাসর বসে।

এতে গ্রাম ও অাশপাশের যুব সমাজ ধ্বংসের ধারপ্রান্তে। অভিযোগ উঠেছে এসব জোয়াড়িরা থাকার পরও মাদরাসা অফিস কক্ষে কি ভাবে চুরি সংঘঠিত হয়।
বিষয়টি দ্রুত খতিয়ে দেখে সংঘবদ্ধ চোরদের শনাক্ত করে মাদরাসার নগদ টাকা ও মুল্যবান কাগজপত্র উদ্ধার করতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান স্থানীয়রা।