বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথে অনিয়ম দুর্নীতির কবলে দ্বীপবন্ধ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়



আব্দুস সালাম,বিশ্বনাথ:: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ‘দ্বীপবন্ধ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনিয়ম দূর্নীতি তদন্ত করা হলেও রহস্য জনক কারনে ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছেনা।

১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া দ্বীপবন্ধ সরকারি প্রাথামিক বিদ্যালয়ে দীর্ঘ দিন ধরে তিনজন শিক্ষক থাকলেও ঘন্টা খানেকের বেশি পাঠদান হয়না।

প্রায়দিন স্কুল খোলা থাকলেও শিক্ষক না থাকায় শিশু শিক্ষার্থীরা ঝগড়া-বিবাদ করে বাড়িতে চলে যায়। দ্বীপবন্ধ গ্রামেই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাজমুল হক ওরফে জহুর আলী ও তার স্ত্রী নাছিমা বেগমের বাড়ি। শিক্ষার্থীদের নিয়মিত লেখাপড়া না করালেও নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন তারা। সরকারের নির্দেশ মতে শতভাগ শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে উপস্থিত রাখা শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির দায়িত্ব। কিন্তু শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনা কমিটি কোন দায়িত্ব পালন করছেন না।

ফলে অধিকাংশ শিক্ষার্থী অন্য বিদ্যালয়ে চলে গেছে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী স্বামী স্ত্রী কোন মতেই একই বিদ্যালয়ে থাকার কথা নয়। কিন্তু তারা দীর্ঘ প্রায় দেড় যুগ ধরে বহাল তবিয়তে রয়েছেন এ বিদ্যালয়ে। গত ৫এপ্রিল গ্রামবাসিরা ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাজমুল হক ও তার স্ত্রী নাছিমা বেগমের বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতি, দায়িত্ব কর্তব্যের অবহেলা, নিয়মিত ক্লাস না করা ও গ্রামে কোন্দল সৃষ্টির অভিযোগ করেছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে।

প্রায় দু’মাস পূর্বে জেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা দতন্ত করলেও এ পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এ ব্যাপারে তদন্তকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মুনতাকিম আলী জানান তদন্ত রিপোর্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট দাখিল করেছেন এবং তিনিই ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: উবায়দুল্লার সাথে ০১৭১২০০৭৩১০ মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান এখনো রিপোর্ট পাননি।

UA-126402543-3