মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ছাতকের সিংচাপইড় ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন



ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে হাওরের বোরো ফসলরক্ষা বাঁধের অতিরিক্ত কাজের বিল আদায়ে ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে অবরুদ্ধ রেখে লাঞ্ছিত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে প্রচার করার ঘটনায় উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদের সাময়িক বরখাস্তকৃত সাহেল চেয়ারম্যানের স্থলে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছেন- ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান ১নং ওয়ার্ড সদস্য মো. মোফাজ্জল হোসেন।

গত ১৭ জুলাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাঁকে এই দায়িত্ব প্রদান করেন। জানা যায়, গত ১৭ মে ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসকক্ষে ঢুকে সিংচাপইড় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেল স্থানীয় চাউলীর হাওরের বাঁধের অতিরিক্ত কাজের বিল দাবি করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাছির উল্লাহ খান ও পাউবোর উপ সহকারী প্রকৌশলী সাদত হোসেনকে অবরুদ্ধ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন ও লাঞ্ছিত করেন তিনি।

এসময় পুরো ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ৫০ মিনিট লাইভ প্রচারও করেন তিনি। ঘটনাটি ফেইসবুকে লাইভ প্রচার হওয়ায় জেলাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি সরেজমিনে ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পান।

এছাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা রয়েছে। পুলিশ সেই মামলার অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করেছে। তাছাড়াও ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলের বিরুদ্ধে পুলিশ এস্টল্টসহ আরো দুইটি মামলা চলমান রয়েছে।

সিংচাপইড় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলকে মন্ত্রণালয় থেকে সাময়িক বরখাস্তের পাশাপাশি কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। নোটিশে বলা হয়েছে কেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে চূড়ান্তভাবে অপসরাণ করা হবে না তার জবাব পত্র প্রাপ্তির ১০দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রেরণ করতে হবে।

UA-126402543-3