বৃহস্পতিবার, আগস্ট ৬, ২০ ২০
এক্সক্লু‌সিভ ডেস্ক
১৮ মার্চ ২০ ২০
১১:০ ১ অপরাহ্ণ
ওসমানী হাসপাতালের দূনীর্তিবাজ চক্রের দুই সদস্য কারাগারে

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দূনীর্তিবাজ চক্রের দুই সদস্যকে আটক করছে এসএমপি কোতোয়ালী থানা পুলিশ। তবে এখনো ধরাছোয়ার বাহিরে রয়েছে ওই চক্রের মূল হোতা অফিস সহকারী নূর মোহাম্মদসহ আরো তিনজন। 
জানা গেছে, সিলেট সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক অফিস সহকারী নূর মোহাম্মদ, সিনিয়র স্টাফ নার্স তাজুল ইসলাম, রেজাউল করিম, স্টাফ নার্স নূরুল ইসলাম ও অফিস সহকারী ওয়াহিদুর রহমান সহ একটি চক্র। এদের মধ্যে রেজাউল ওসমানী হাসপাতালে এবং বাকি চারজন ওসমানীর আওতাধীন সদর ও সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে কর্মরত আছেন। এই চক্রটি সংঘবদ্ধ হয়ে ওসমানী মেডিকেলে দূনীর্তির মাধ্যমে অটল সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। বর্তমানে সিলেট নগরীতে রয়েছে তাদের নিজস্ব বাড়ি গাড়ী। সম্প্রতি তাদের দূনীর্তির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় তাদের হাতে হামলার শিকার হয়েছেন এক ব্যাক্তি। পরে ওই ব্যাক্তিকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে ওই লোক বাদি হয়ে এসএমপির কোতোয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- কোতোয়ালী সি আর ৫৫৪/১৯। মামলাটি দীর্ঘ তদন্তের পর আদালতে চার্জশীট দাখিল করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। গত ৫ মার্চ বৃহস্পতিবার মামালার শুনানি শেষে আদালত ওই চক্রের পাঁচ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। 
বৃহস্পতিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোতোয়ালী থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে পলাতক দুই পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতার কৃতরা হলেন, নগরীর শামীমাবাদ এলাকার আ/এ- ৬৪ নং বাসার বাসিন্দা মোঃ আব্দুল হান্নানের ছেলে স্টাফ নার্স তাজুল ইসলাম ও একই এলাকার ১২ নং বাসার বাসিন্দা মুসলিম খলিফার ছেলে স্টাফ নার্স রেজাউল করিম। শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য