বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১, ২০ ২০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২১ মার্চ ২০ ২০
২:৫১ পূর্বাহ্ণ
এ মাসেই বিয়ে,’ দেশে ফেরার আকুতি চীনের উহানে আটকাপড়া তরুণীর

ভারতীয় তরুণী আন্নেম জ্যোতির এ মাসেই বিয়ে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়েপড়ার মূল কেন্দ্রভূমি চীনের উহানে আটকে পড়েছেন তিনি। শরীরে জ্বর থাকায় তাকে দেশে ফেরত আনা হচ্ছে না।

ভারতীয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজারপত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, এয়ার ইন্ডিয়ার প্রথম বিমানে আনা হয়নি তাকে। জ্বর থাকায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে দ্বিতীয় বিমানেও জায়গা হয়নি অন্ধ্রপ্রদেশের আন্নেম জ্যোতির।

এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২৫ জনে, আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২০ হাজার।

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, সোমবার একদিনেই এ ভাইরাসে মারা গেছেন ৬৪ জন; নতুন ৩২২৫ জনের মধ্যে এ ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ৪৩৮ জনে।

রয়টার্স জানিয়েছে, গত বছরের শেষ দিন চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম এ ভাইরাস সংক্রমণের বিষয়টি ধরা পড়ার পর থেকে এক দিনে এত বেশি মৃত্যু ও নতুন রোগীর তথ্য আর আসেনি।

এই ভয় আর আতঙ্কের মধ্যেই উহানে জ্যোতের আটকেপড়ায় তার পরিবারেও উদ্বেগ বাড়ছে। দেশে ফিরতে নিজের আকুতির কথা সামাজিকমাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওতে জানিয়েছেন এ প্রকৌশলী।

জ্যোতি জানিয়েছেন, গত সপ্তাহে এয়ার ইন্ডিয়ার প্রথম বিমানে ওঠার আগে পরীক্ষার সময়ে বাদ পড়েন তিনি ও তার এক সহকর্মী।

ভিডিওতে তিনি বলেন, আমদের ৫৮ জনের উহান থেকে ভারতে ফেরার প্রথম বিমানটিতে ওঠার কথা ছিল। কিন্তু জ্বর থাকায় আমার সহকর্মী সত্য সাই কৃষ্ণ ও আমাকে সেই বিমানে তোলা হয়নি।

বিমানে থাকা চিকিৎসকেরা বলেন— আমরা দ্বিতীয় বিমানটিতে ফিরতে পারব। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তাদের কাছে ফোন আসে। জানানো হয়, জ্বর থাকায় দ্বিতীয় বিমানটিতেও তোলা হবে না তাদের।’

এই ভারতীয় নারী বলেন, আমরা ভাইরাস আক্রান্ত কিনা; তা নিয়ে চীনা কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করে কিছুই জানাননি। কিন্তু আমাদের দেহে এখন সংক্রমণের কোনও উপসর্গ নেই। আমরা সুস্থতার প্রমাণ দিতে প্রস্তুত।

এদিকে মেয়েকে দেশে ফেরাতে জ্যোতির মা প্রমীলারও আকুল আবেদন। তিনি বলেন, বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা এক পাত্রের সঙ্গে এ মাসেই বিয়ে ঠিক হয়েছে জ্যোতির। তার আগে মেয়ে উহানে আটকে পড়ায় দুশ্চিন্তায় গোটা পরিবার।

সম্পর্কিত খবর

পুরানো খবর দেখার জন্য