সোমবার   ২৬ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ১০ ১৪২৬   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সিলেট রুটে ট্রেন চলাচল শুরু দুর্ঘটনার ২২ ঘণ্টা পর

ড্রীম সিলেট

প্রকাশিত : ১২:২১ পিএম, ২৫ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার

জাতীয় ডেস্ক :: কুলাউড়ার বরমচালে আন্ত:নগর উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন দুর্ঘটনার ২২ ঘণ্টা পর সোমবার রাত ৯টা ২৫ মিনিটের সময় পুনরায় ট্রেন চলাচল চালু করা হয়েছে। সোমবার রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিলেট থেকে চট্রগ্রামগামী আন্ত:নগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনটি ছেড়ে যায়। পরে রাত ১০টা ২৫ মিনিট নাগাদ দুর্ঘনাকবলিত বরমচাল রেলব্রীজ এলাকা অতিক্রম করে ট্রেনটি।এর আগে বরমচাল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার রুমান আহমদ সোমবার রাতে নয়া দিগন্ত অনলাইনকে জানান, সিলেট থেকে চট্রগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাত ৯টা ২৫ মিনিটের সময় ছাড়ে। তিনি জানান, এরপর ট্রেনটি বরমচাল দুর্ঘটনাকবলিত এলাকায় থামে। পুরো ইঞ্জিন স্টফ করা হয়। এরপর রেলওয়ের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা মেরামতকৃত ব্রীজ ও লাইন পরীক্ষা শেষে ৫ মাইল বেগে ধীরে ধীরে ট্রেন চালানো হয় ব্রীজ ও লাইনের উপর দিয়ে। এর আগে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় পরীক্ষামূলকভাবে একটি রিলিফ ট্রেন ব্রীজ ও মেরামতকৃত লাইনের উপর দিয়ে চালনো হয়। সফলভাবে ট্রেন চালানোর পর নিয়মিতভাবে ট্রেন চলাচলের সিদ্বান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।এর আগে সোমবার দুপুর ১২টায় জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে কুলাউড়া থেকে ছেড়ে যায়। এরপর ৭১০ পাহাড়ীকা এক্সপ্রেস চট্রগ্রামের উদ্দেশ্যে এবং বিকেল ৪টায় আন্ত:নগর ৭১০ পারাবত এক্সপ্রেস ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় বলে কুলাউড়া স্টেশন মাস্টার মুহিবুল ইসলাম নিশ্চিত করেছেন।এর আগে রেল সচিব বরমচাল দুর্ঘটনাকবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের কাছে কুলাউড়া থেকে ঢাকা ও চট্রগাম রুটে ট্রেন চলাচলের ঘোষণা দেন। এরপর থেকে বরমচাল দুর্ঘটনার পর ২২ ঘণ্টা পর ঢাকা ও চট্রগ্রামের সাথে কুলাউড়া থেকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হলো। তবে বরমচালের রেললাইন ও ব্রীজ মেরামত করতে কমপক্ষে ১ সপ্তাহ সময় লাগবে বলে রেলওয়ে সূত্রে জানানো হয়েছিল।উল্লেখ্য, রোববার রাত পৌনে ১২টায় ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন বরমচাল এলাকা অতিক্রমের সময় ট্রেনের ৭টি বগি লাইনচ্যুত হয় এবং রেলব্রীজ ভেঙ্গে পড়ে ৪ জন নিহত ও শতাধিক যাত্রী আহত হন।