মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

বালাগঞ্জে প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে জখম ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা 

ড্রীম সিলেট

প্রকাশিত : ১১:২৭ পিএম, ৩০ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ডেস্ক রিপোর্ট:: সিলেটের বালাগঞ্জে ভুমি দখল করতে গিয়ে প্রতিপক্ষকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত সোমবার (২৭ মে) উপজেলার আলাপুর গ্রামের মৃত আক্রম আলীর ছেলে ফারুক মিয়া বাদী হয়ে নশিওরপুর গ্রামের রফিক সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে  সিলেটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৫ম আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বালাগঞ্জ থানাকে নির্দেশ প্রদান করেন। আদালতের নির্দেশ মোতাবেক বালাগঞ্জ থানায় মামলা নম্বর (১১(০৫)১৯ ইং) রের্কড করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সূত্র। 

এর পূর্বে  গত ২৫ মে ফারুক মিয়ার জায়গা দখল করতে যান রফিক মিয়া ও তার বাহিনী। এতে ফারুক মিয়ার পক্ষের লোকজন বাধা প্রদান করলে রফিক, মনোহর, আব্দুল জলিল, শহিদ, লুৎফুর, মুহিবুর, মুজিবুর, হোসাইন ও তাদের পক্ষের লোকজন ফারুক মিয়া গংদের উপর হামলা করে ৯ জনকে কুপিয়ে জখম করে। এ হামলায় গুরুতর আহতরা হলেন- উপজেলার আলাপুর গ্রামের ফারুক মিয়ার পুত্র ইমরান আহমদ, সিকন্দর আলীর পুত্র মাখন মিয়া, মাখন মিয়ার পুত্র কিবরিয়া আহমদ, আব্দুল ছোবহানের পুত্র আমির আলী, আরজন্দ আলীর পুত্র আকমল আলী, আনজব আলীর পুত্র মসকন্দর আলী, আকবর আলীর পুত্র সজ্জাদ আলী, আমির আলীর পুত্র মনসুর আহমদ, আলকাছ আলীর পুত্র ইমান উদ্দিন, ইসকন্দর আলীর পুত্র আকলুছ আলী। আহতরা বর্তমানে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আদালত সূত্র জানায়, গত ২৫ মে সকাল ১১ টায় নশিওরপুর মৌজার ১৯৮ জে এল ও ১৫২ নং খতিয়ানের বিএস দাগ ১৮৯ এর ১৬ শত ভূমি জোর পূর্বক দখল করতে অস্ত্র সহকারে ভূমিতে অনধিকার প্রবেশ করে ট্রাক্টরযোগে জমি ছা দিতে থাকে। এতে ফারুক মিয়া বাধা প্রদান করেন। ক্ষিপ্ত হয়ে রফিক মিয়া তার বাহিনীকে হুকুম দিয়ে বলে সবাইকে কুপিয়ে খুন করে মারো। 
তাৎক্ষনিক মনোহর, আব্দুল জলিল, শহিদ, লুৎফুর, মুহিবুর, মুজিবুর, হোসাইন ও তাদের পক্ষের লোকজন দেশিয় অস্ত্র সহকারে হামলা চালায় ফারুক মিয়ার উপর। তাকে রক্ষা করতে তার স্বজন ও স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তাদের উপরও নানা ধরণের দেশিও অস্ত্র সহকারে হামলা চালায় রফিক বাহিনী। এতে গুরুত্বও আহত হন ৯ জন । তাৎক্ষনিক স্থানীয়রা এই ৯ জনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। এ বিষয়ে ফারুক মিয়া বাদী হয়ে নশিওরপুর গ্রামের রফিক সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে সিলেটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৫ম আদালতে মামলা দায়ের করেন। পরবর্তিতে ২৮ মে থানা পুলিশ মামলাটি রের্কড করেন। 
এ ব্যাপারে মামলার বাদী ফারুক মিয়া জানান, তার চাচাতো ভাই যুক্তরাজ্য প্রবাসি। তার অবর্তমানে তিনি সকল সহায় সম্পতি দেখাশোনা করেন। গত ২৫ মে তাদের ১৬ শতক ভ’মি জোর দখল করার উদ্দেশ্যে রফিকের নেতৃত্বে তার বাহিনীর সন্ত্রাসীরা তাদের উপর নানা ধরণের দেশিয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। এতে ৯ জন আহত হন।
স্থানীয় মুরব্বী বাবরু মিয়া জানান, এলাকায় অনেকবার সালিশ বৈঠকও হয়েছে।  রফিক মিয়া ও ফারুক মিয়ার বিরোধ নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করেছি।  

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী মোতাহির আলী জানান, বালাগঞ্জ উপজেলার নশিওরপুর গ্রামের মৃত মো. মলিক এর ছেলে রফিক সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালত মামলাটি গ্রহণ করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বালাগঞ্জ থানাকে নির্দেশ প্রদান করেছেন।
বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) সুকুমল জানান, আদালতের নির্দেশ মোতাবেক থানায় মামরা রের্কড করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদেও গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।