মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১১ ১৪২৬   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

জগন্নাথপুরে প্রবাসীর বাড়ি দখল নিয়ে তোলপাড়

ড্রীম সিলেট

প্রকাশিত : ০৪:৪০ পিএম, ৩০ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

মো.শাহজাহান মিয়া,জগন্নাথপুর:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে প্রবাসীর বাড়ি সহ কোটি টাকার সম্পত্তি দখলের ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে জগন্নাথপুর উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের হলিয়ারপাড়া গ্রামে।
জানাগেছে, হলিয়ারপাড়া গ্রামের মৃত ইদ্রিছ আলীর ছেলে যুক্তরাজ্য প্রবাসী ইছাক মিয়া দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাস করছেন। অভিযোগ উঠেছে, তিনি বাড়িতে না থাকার সুযোগে প্রবাসী ইছাক মিয়ার ছেলে দাবি করে তিলক গ্রামের দীপু মিয়া নামের এক ব্যক্তি প্রবাসীর বাড়ি সহ সম্পত্তি জবর-দখল করে বাড়ির গাছপালা বিক্রি করে উজাড় করে দিচ্ছেন।

সেই সাথে স্থানীয় মিরপুর বাজারে থাকা প্রবাসীর ১১ টি রুমের একটি টিনসেড মার্কেট ভেঙে দিয়ে গ্যারেজ বানিয়ে অন্যত্র ভাড়া দিয়েছেন। এছাড়া প্রবাসীর বাড়ির উপর দিয়ে টাকার বিনিময়ে অন্য ব্যক্তিদের চলাচলের সুবিধা দেন। এসব ঘটনায় প্রবাসী ইছাক মিয়া ক্ষুব্দ হয়ে উঠেন।  যদিও প্রবাসী ইছাক মিয়া দীপুকে তার সন্তান বলে মেনে নিতে রাজি নন। এরপরও কিভাবে প্রবাসীর বাড়ি সহ সম্পত্তি দখল করে আছে দীপু মিয়া। এতে দীপুকে সহযোগিতা করছে হান্নান মিয়া নামের এক ব্যক্তি। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়, বিগত প্রায় ২৯ বছর আগে প্রবাসী ইছাক মিয়া শিরু বেগম নামের এক মহিলাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। বিয়ের পর শিরু বেগমের গর্ভে দীপু মিয়া ও হানিশা বেগম নামের দুইটি সন্তানের জন্ম হয়। তখন এ দুই সন্তানদের প্রবাসী ইছাক মিয়া যুক্তরাজ্যে নেয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় রক্তের গ্রুপের মিল থাকায় হানিশা বেগমকে তিনি যুক্তরাজ্যে নেন। তবে রক্তের গ্রুপের মিল না থাকায় দীপুকে যুক্তরাজ্যে নিতে পারেননি। এরপর থেকে দীপুর জন্ম নিয়ে প্রবাসীর সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে প্রবাসী ইছাক মিয়া দীপুকে সন্তান হিসেবে মেনে নেননি। এর মধ্যে দীপুর মা শিরু বেগমের মৃত্যু হয়। অবশেষে প্রবাসী ইছাক মিয়া যুক্তরাজ্যে থাকার সুযোগে দীপু সন্তান দাবি করে প্রবাসীর বাড়ি সহ সকল সম্পত্তি জবর-দখল করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে প্রবাসী ইছাক মিয়া ক্ষুব্দ হয়ে উঠেন এবং চলতি বছরের ২০ মে জগন্নাথপুর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে আম-মোক্তার নামা দলিলের মাধ্যমে প্রবাসী ইছাক মিয়ার ধর্মীয় ভাই আবদুর রহিমকে বাড়ি সহ সকল সম্পত্তি প্রদান করেন। বর্তমানে আবদুর রহিম প্রবাসী ইছাক মিয়ার বাড়ি সহ সম্পত্তির মালিক। 

এ ব্যাপারে যুক্তরাজ্য প্রবাসী ইছাক মিয়া জানান, দীপু আমার ঔরষজাত সন্তান নয়। সে অন্যায়ভাবে আমার বাড়ি সহ সম্পত্তি দখল করে রেখেছে। বাড়ির গাছপালা বিক্রি করে ক্ষতি সাধর করছে। তার যন্ত্রনায় আমি অতিষ্ঠ হয়ে আমার বাড়ি সহ সব সম্পত্তি আম-মোক্তার নামার মাধ্যমে আমার ধর্মীয় ভাই আবদুর রহিমকে দিয়েছি। এদিকে-আম-মোক্তার নামার মাধ্যমে বর্তমানে প্রবাসীর বাড়ি সহ সব সম্পত্তির মালিক আবদুর রহিম বলেন, দীপুকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে জানতে ৩০ মে বৃহস্পতিবার বারবার চেষ্টা করেও প্রথমে মোবাইল ফোন রিসিভ না করার কারণে এবং পরে ফোন বন্ধ করে দেয়ায় অভিযুক্ত দীপু মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।