মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১১ ১৪২৬   ২১ শাওয়াল ১৪৪০

ভূমধ্যসাগর নৌকাডুবি: ৫ দিনের রিমান্ডে এনামুল ও রাজ্জাক

ড্রীম সিলেট

প্রকাশিত : ০১:৫৯ পিএম, ৩০ মে ২০১৯ বৃহস্পতিবার

ডেস্ক রিপোর্ট::ভূমধ্যসাগর দিয়ে লিবিয়া থেকে ইতালিতে মানবপাচারে জড়িত চক্রের সদস্য এনামুল হক ও আব্দুর রাজ্জাককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমাণ্ডে পেয়েছে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তাদের মধ্যে এনামুল হকের ছয় দিন এবং তার সহযোগী আব্দুর রাজ্জাকের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লায়লা মেহের বানু তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির ইকোনমি ক্রাইম স্কোয়াডের পরিদর্শক শহিদুল ইসলাম।

তিনি জানান, আসামিদের আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। শুনানি শেষে বিচারক এনামুলের ছয় দিন ও রাজ্জাকের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এছাড়া নৌকাডুবির ঘটনায় বেঁচে ফিরে আসা ফেঞ্চুগঞ্জের বিল্লাল হোসেন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

গত ১৬ মে রাতে সিলেটের আলোচিত মানবপাচারকারী এনামুল হকসহ ২০ মানবপাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা করেন ভূমধ্যসাগরে নিহত আব্দুল আজিজের ভাই ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মুহিদপুর গ্রামের মফিজ উদ্দিন।

মামলার আসামিরা হলেন- সিলেটের রাজা ম্যানশনের নিউ ইয়াহিয়া ওভারসিজের মালিক গোলাপগঞ্জ উপজেলার পনাইরচক গ্রামের মৃত আব্দুল খালিক উরফে কটাই মেম্বারের ছেলে এনামুল হক, একই উপজেলার হাওরতলা গ্রামের ইলিয়াস মিয়ার ছেলে জায়েদ আহমেদ, ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার রাজ্জাক হোসেন, ঢাকার সাইফুল ইসলাম, মঞ্জুর ইসলাম ওরফে গুডলাক ও তাদের সহযোগী অজ্ঞাত আরও ১০-১৫ জন। ওই রাতেই এনামুলসহ তিন মানবপাচারকারীকে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

গত ৯ মে লিবিয়া থেকে ইতালি যাবার পথে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে মারা যান অন্ত ৬৫ জন। তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি আছেন। তাদের বেশিরভাগই সিলেটের বাসিন্দা।