নিখোঁজ ঈমান আলীর খোঁজে: নিজাম উদ্দীন সালেহ


| ০৭:০৫ অপরাহ্ন, নভেম্বর ৩০, ২০১৯

IMG



আমার বন্ধু ঈমান আলী নেই
হঠাৎ করেই নিখোঁজ হয়ে গেছে সে
ইদানিং আমি কোথাও খুঁজে পাচ্ছি না তাকে।

সেদিন তাকে খুঁজতে খুঁজতে ঢুকে পড়েছিলাম
নগরীর একটি নিত্যপণ্যের আড়তে
দেখতে পেলাম সেখানে শত শত পেঁয়াজের বস্তা
গোদামের মেঝে থেকে ছাদ পর্যন্ত ঠাসা
কোন কোন বস্তার পেঁয়াজে চারা গজিয়েছে, পঁচে যাচ্ছে!
অথচ শোনা যাচ্ছে সিলেট অঞ্চলের অনেক দোকানে
পেঁয়াজ নেই, দামও আকাশচুম্বী
ক্রেতারা পেঁয়াজ কিনতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন শূন্য হাতে!

বুঝলাম, এখানেও ঈমান আলী নেই
ঈমান আলী থাকলে কখনো এমনটি হতো না।
ঈমান আলীকে খুঁজতে আমি গিয়েছিলাম
বন্দর বাজারের ফলমূলের দোকানে,
এমনকি কদমতলীর ফলের আড়তে
গিয়ে দেখলাম, সেখানে একটি মাছিও নেই
যেখানে ফরমালিন, কার্বাইডের ভয়ে মধুমক্ষিকারা পর্যন্ত পলাতক
সেখানে ঈমান আলী থাকবে কীভাবে?

ঈমান আলীকে খুঁজতে আমি গিয়েছিলাম নগরীর
একটি অভিজাত শপিং মলে
সেখানে নানা রংয়ের আলোয় ঝলমল করছে চারপাশ
কাপড় চোপড়, শাড়ি, গয়না
বর্ণিল আলোয় এগুলোর আসল রঙ হারিয়ে গেছে
বুঝলাম, এখানেও ঈমান আলী নেই,
ঈমান আলী থাকলে দিনের আলোয় এমন প্রতারণা করতে পারতো না কেউ।

কে যেনো বললো, নগরীর মাছ বাজারে ঈমান আলীকে দেখা গেছে
তাই চলে গেলাম তাকে খুঁজতে সেখানে
দেখলাম বরফের নীচে রাখা হয়েছে
ইলিশসহ অগুণতি জলজ প্রাণী
ফরমালিনের পানিতে চুবানো ছোট বড়ো নানা জাতের মাছ,
হতাশ হলাম, সেখানেও ঈমান আলী নেই।
ঈমান আলী থাকলে এমন অপকর্ম করতে
সাহসী হতো না কেউ।

পথে যেতে যেতে দেখ হলো এক সাংবাদিকের সাথে
তাকে জিজ্ঞেস করলাম, তিনি কি
ঈমান আলীকে দেখেছেন?
তিনি এমন অবাক দৃষ্টিতে আমার দিকে তাকালেন
যেনো এমন নাম তিনি কখনো শুনেননি,
কিংবা শুনে থাকলেও নিতান্তই অখ্যাত ও অভাজন
বলেই মনে হয়েছে তাকে।
দেখলাম তার মোটর সাইকেলে কোন নম্বর নেই
নম্বর প্লেটে লেখা আছে ‘সাংবাদিক’।
বুঝলাম, ঈমান আলীকে তার চেনার কথা নয়!

ঈমান আলীকে খুঁজতে খুঁজতে সেদিন আমি
একটি সরকারি অফিসে গিয়েছিলাম
দেখলাম, বারান্দায় ঘোরাঘুরি করছে একজন পরিচিত লোক,
সে জানালো, গত একমাস ধরে হাঁটাহাঁটি করছে
কিন্তু তার একটি ফাইলে স্বাক্ষর আদায়
করতে পারেনি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার।
ভেতরে দেখলাম, একজন ঐ কর্মকর্তার হাতে
একটি খাম তুলে দিয়ে অপর হাতে
একটি ফাইল নিয়ে উৎফুল্ল চিত্তে চলে গেলো।
বুঝলাম এখানেও ঈমান আলী নেই
ঈমান আলী থাকলে এমন অনিয়ম ও দুর্নীতি
কখনো হতো না!

এরপর আমি ঈমান আলীর খোঁজে বহুস্থানে গিয়েছি
ছুটে গেছি দেশের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে
গিয়েছি বিমান, ট্রেন, বাস টার্মিনাল, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়
কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়, থানা, বিআরটিএ, ভূমি অফিস
পিডিবি, সিটি কর্পোরেশন হাসপাতাল
ক্লিনিক ও ডাক্তারের চেম্বারসহ আরো অনেক স্থানে
কিন্তু দুর্ভাগ্য, এসব কোন স্থানেই আমি তার
দেখা কিংবা খোঁজ পাইনি।
আপনারা কি তাকে কোথাও দেখেছেন?
কোন সহৃদয় ব্যক্তি তার খোঁজ পেলে
দয়া করে আমাকে জানাতে ভুলবেন না।




সম্পর্কিত খবর -----------------------------






লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন




পুরানো খবর দেখুন