মোড়ক উন্মোচন আর লেখক-পাঠকদের আড্ডায় পর্দা নামলো সিলেট কিতাবমেলার


| ০৬:৫৩ অপরাহ্ন, নভেম্বর ২৯, ২০১৯

IMG



লেখক-অতিথিদের হাতে নতুন বই। মেলাভরা অগণিত পাঠক, বইপোঁকা, সাহিত্যপ্রেমিরা। উন্মোচন হয়েছে অনেক নতুন প্রকাশনা। উন্মোচন হওয়া বইয়ের মধ্যে জাস্টস আল্লামা তাকি উসমানির 'পারিবারিক কলহ ও প্রতিকার' ও মাজিদা রিফার 'ইলাল উখতিল মুসলিমা' বইটি অন্যতম। পাঠকদের পছন্দের শীর্ষে ছিল 'হুজুরের বউ', 'হুজুরের অপেক্ষায়' বইটি। 
শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) জুমার নামাযের পরপরই মেলায় আগতদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। স্টল ঘুরে ঘুরে দেখেন ইসলামি ঘরানার অনেক সাহিত্যিক। 
অতিথিদের মধ্যে ছিলেন, সিলেট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুশতাক আহমদ খান, মাওলানা আতাউল হক জালালাবাদী, মাওলানা নাজমুল ইসলাম কাসিমিসহ অনেকে। শুক্রবার শেষদিন হওয়ায় সন্ধ্যার পর মেলায় ছিল উপচেপড়া ভীড়। লেখক-পাঠকদের মিলনমেলায় রূপ নেয় কিতাবমেলা।  রাত ১০টায় কিতাবমেলা শেষ হওয়ার আগে ইসলামি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও ছিল উপস্থিত দর্শনার্থীদের জন্য উপভোগের। এসময় আগতরা বিভিন্ন স্টল ঘুরে ঘুরে তাদের পছন্দমাফিক কিতাব কিনেন। লেখকদের সাথে জময়ে আড্ডা দিতেও দেখা যায় অনেককে। বুধবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ১০টায় শুরু হওয়া কিতাবমেলার শেষ হচ্ছে। 
ভাষা বইমেলা, একুশে বইমেলাসহ আরো কত নামে সিলেটে হয়ে থাকে সাহিত্যের চর্চা। এবার আধ্যাত্মিক পূণ্যভূমি সিলেট নগরীতে হচ্ছে ‘কিতাবমেলা’। জাগতিক শিক্ষিতরা ভাবছেন এটা আবার কীসের মেলা। চিন্তার কারণ নেই। এটাও আপনাদের কাঙ্খিত বইমেলা। কিতাব আরবি শব্দ। যার অর্থ বই। তবে এই বইমেলায় ছিল ইসলামের প্রতিটি দিকনির্দেশনার এক অনবদ্য রচনা। জীবনচলার পাথেয় হিসেবে ইসলামি ঘরানার দেশ-বিদেশের সব নামকরা স্কলারদের রচনা সম্ভারই এই বইমেলার মূল আকর্ষণ। 
দেশের নামকরা ইসলামি প্রকাশনা মাকতাবাতুল আযহারের উদ্যোগে সারাদেশে আঞ্চলিক কিতাবমেলার ধারাবাহিকতায় ২০তম এবং কালান্তর প্রকাশনী ও মাকতাবাতুল আযহারের যৌথ আয়োজনে সিলেটে তৃতীয় কিতাবমেলা অনুষ্ঠিত হয়। মেলা উপলক্ষে প্রতিটি প্রকাশনীর বই অতিরিক্ত ১০% ছাড়ে বিক্রি হয়। এ ছাড়াও বিভিন্ন পুরস্কারের ঘোষণা দেওয়া হয়। তিনদিনে যারা সর্বোচ্চ টাকার বই ক্রয় করেন, তাদের মধ্য থেকে তিনজনকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করাও হয়। 
এব্যাপারে কথা হলে মাকতাবাতুল আযহার সিলেট শাখার পরিচালক সালমান বিন মালিক বলেন, আমরা এধরণের ইসলামি কিতাবমেলা আগে দু’বার করেছি। সিলেটনগরীর মানুষ ইসলামপ্রিয়। মাদরাসা পড়–য়া ছাড়াও বিশেষকরে কলেজ-ভার্সিটির অনেক তরুণ-তরুণীরা আছেন যারা ইসলামি বই অধ্যয়নে ভালবাসেন। কোথায় পাওয়া যায়? কী বই পড়া যায়? অনেকক্ষেত্রে তারা বইপছন্দ করতে ধাক্কা খেয়ে থাকেন। তাদের কথা মাথায় রেখে আমাদের এ আয়োজন।
কালান্তর প্রকাশনীর প্রকাশক আবুল কালাম আজাদ বলেন, কিতাবমেলা এটি একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। এই ইসলামি বইমেলার দ্বারা সমাজ ও পরিবারে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছবে। সমাজ বিনির্মানে ভূমিকা রাখবে বলে আশাকরি। বিজ্ঞপ্তি




সম্পর্কিত খবর -----------------------------






লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন




পুরানো খবর দেখুন