সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের ফলক উন্মোচন


| ০৯:৩৭ অপরাহ্ন, জানুয়ারী ০৪, ২০২০

IMG



সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতালের ১০তলা ভবনের ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৪ জানুয়ারি শনিবার দুপুরে সিলেট শহরতলীর কুমারগাঁও এলাকায় ২ বিঘা জায়গায় ১০০ কোটি টাকা ব্যায়ে ১০ তলা বিশিষ্ঠ ১১০ শয্যার কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতাল নির্মাণ কাজ-এর ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। গত দেড় বছর কিডনি ফাউন্ডেশন কম খরচে এবং আন্তর্জাতিক মানের ডায়ালাইসিস চিকিৎসা দিয়ে আসছে।
 এখন সরকারি অনুদান পেয়ে ১০তলা পূর্ণাঙ্গ হাসপাতলের জন্য কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফাউন্ডেশনের সচিব কর্ণেল (অবঃ) এম এ সালাম বীর প্রতীক। তিনি কিডনি হাসপাতালের ইতিবৃত্ত বর্ণনা করে জমি দাতা জুবায়ের আহমেদ চৌধুরীকে বদান্যতার জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি সরকারী কর্তৃপক্ষসহ এই প্রজেক্টের এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও আন্তর্জাতিক চিকিৎসক ও অন্যান্যদের ভূয়সী প্রশংসা করেন। ফাউন্ডেশনের সভাপতি এমিরেটাস অধ্যাপক ও কিডনি বিশেষজ্ঞ ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ বলেন, এই হাসপাতাল আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসাসহ ইমার্জেন্সি মেডিসিন, আইসিইউ, বার্ণ ইউনিটসহ অন্যান্য বিশেষজ্ঞ দিয়ে সিলেটের স্বাস্থ্যসেবায় সব হাসপাতালের উন্নতির জন্য প্রচেষ্ঠা চালাবে।
 প্রধান অতিথি সৈয়দ নুরুজ্জামান ও মিসেস ফারহাত নাসিম জামান( শহীদ ডাঃ শামসুদ্দীন আহমেদ এর কন্য ও জামাতা) তাঁদের পরিবারের এতে সম্পৃক্ততার জন্য সন্তোষ প্রকাশ করেন। শহীদ ডা. শামসুদ্দীন আহমদ ফাউন্ডেশন-এর সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সালাহউদ্দীন আহমদ হাসপাতালের ভবিষ্যৎ-এর পরিকল্পনার উপর আলোকপাত করেন। ফাউন্ডেশনের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. নজমুস সাকিব হাসপাতালের মান উন্নত রাখার জন্য এবং বিনামূল্যে অথবা স্বল্পমূল্যে ডায়ালাইসিস করার উপর আলোকপাত করেন। সৈয়দ জাকী হোসেন ও নাজু রাহাত হোসেন (নিউইয়র্ক প্রবাসী ও শহীদ ডা. শামসুদ্দীন আহমদ-এর জামাতা ও কন্যা)  হাসপাতাল তৈরীর জন্য কোন ঘাটতি পড়লে তা পূরণ করার অঙ্গীকার করেন। 
আরো বক্তব্য  রাখেন মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সালমা বাছিত, কানাডা জালালাবাদ এসোসিয়েশন সভাপতি দেবব্রত দে, লন্ডনের কাউন্সিলর তমাল ফেরদৌসী হেনা, কিডনি ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী ফরিদা নাসরীন ও নিউইয়ক প্রবাসী ডা. তনবীরা জামান (শহীদ ডাঃ শামসুদ্দীন আহমদ এর নাতনী)।
 সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ-এর প্রেসিডেন্ট  শোয়েব আহমদ  বলেন, সবসময় সিলেট চেম্বার এই মহৎ উদ্যোগকে সহায়তা করবে।  জমিদাতা জুবায়ের আহমেদ চৌধুরী বলেন, আমার পরিবার এই জমি দান করে এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট হওয়ার জন্য আমরা গর্বিত। একটা দোয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। শীঘ্রই ভিত্তিপ্রস্তর স্হাপনের জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে। হাসপাতাল তৈরি হলেও রোগীদের স্বল্পমূল্যে বা বিনামূল্যে রোগীদের চিকিৎসা দেবার জন্য দেশ ও বিদেশের দাতা ও সমর্থক দের আহবান জানানো হচ্ছে। ইতিমধ্যে অনেক সহৃদয় ব্যক্তিরা  মুক্তহস্তে দান করে ডায়ালাইসিস এর খরচ কমিয়েছেন। 
যেহেতু ফাউন্ডেশন অলাভজনক প্রতিষ্ঠান তাই সবার আন্তরিক সহযোগীতা-এর অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন। দোয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। শীঘ্রই ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে। কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেট-এর প্রধান নির্বাহী ফরিদা নাসরীন জানান- কিডনী রোগ শনাক্ত করার জন্য প্রিটেনিং পরীক্ষার মূল্য ১৪০/= টাকা ও ইউরিনারী পরীক্ষা ১৪০/= টাকা নেয়া হয় কিডনী ফাউন্ডেশন সিলেট-এ। সিলেট শহরতলীর কুমারগাঁও এলাকায় ২ বিঘা জায়গায় ১০০ কোটি টাকা ব্যায়ে ১০ তলা বিশিষ্ঠ ১১০ শয্যার কিডনী ফাউন্ডেশন হাসপাতাল নির্মাণ কাজ শুরু হবে এবার। ২০২২ সালে হাসপাতালটি  শুভ উদ্বোধন করার কথা রয়েছে। -বিজ্ঞপ্তি




সম্পর্কিত খবর -----------------------------






লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন




পুরানো খবর দেখুন