কুলাউড়ার ওরুসের নামে অবাদে চলছে অপকর্ম : দু’পক্ষের হামলায় আহত ৫


কুলাউড়া প্রতিনিধি:: | ০৬:২৬ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯

IMG



কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নে হযরত শাহ কালা (রহ:) মাজারকে কেন্দ্র করে বিতর্কিত ওরুসের নামে  নানা অসামাজিক কর্মকান্ড চলছে বলে স্থানীয় লোকজন জানান। 
জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে ১৩ ডিসেম্বর রাতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। এসব আয়োজনের পেছনে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালীরা জড়িত বলে পুলিশ জানায়।
একাধিক সুত্রে জানা যায়, গত ১২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়েছে উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের সিংগুর এলাকায় শাহ কালা (রহ:) এর ওরুস। প্রতিবছর এই ওরুস ৩দিনের হয়ে থাকলেও এখন ওরুস পরিকল্পিতভাবে ৫ দিনের আয়োজন করা হয়। ওরুস তো নয় মাজারের আশপাশ এলাকায় বসেছে সার্কাস, ডেঞ্জার গেইম, অশ্লীল নৃত্য, গাজা ও জুয়ার জমজমাট আসর। ওরুসকে কেন্দ্র করে মাজারের খাদিমদের মধ্যেও দ্বিধাবিভক্তি রয়েছে। মাজারের বার্ষিক প্রকৃত ওরুস ২১, ২২ ও ২৩ মার্চ বলে জানান একপক্ষ। কিন্তু এবার আরো দুদিন বাড়িয়ে ৫ দিনে নেয়া হয়েছে। 
জানা যায়, ১৩ ডিসেম্বর শুক্রবার রাতে জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ৫জন আহত হয়। আহতরা হলেন- সুন্দর মিয়া,রুহিন মিয়া,নাসির,তারিক,সাজু। আহতরা কুলাউড়া হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়।
স্থানীয় লোকজন জানান, পুলিশকে ম্যানেজ করেই এসব অপকর্ম চলছে। টাকার ভাগাভাগি নিয়ে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। তবে কুলাউড়া থানার এসআই রফিক জানান, তরিকুল ইসলাম, সাবেক মেম্বার সাজ্জাদ হোসেন সাজু ও সোহেল মিয়ার নেতৃত্বে এসব অপকর্ম চলছে। এরা ক্ষমতাসীন দলের নেতা। মেলার অনুমোদন পুলিশ দেয়নি।
কুলাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী জানান, জুয়া চলার কথা নয়। যদি সত্যি চলে তবে তা বন্ধ করে দেয়া হবে।
কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, ওরুসের নামে মেলাসহ সবকিছু (আজ) শনিবার রাতেই বন্ধ করে দেয়া হবে।
কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম ফরহাদ চৌধুরী জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। অবশ্যই খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।




সম্পর্কিত খবর -----------------------------






লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন




পুরানো খবর দেখুন