বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জাতীয় সংসদ নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হলেন হবিগঞ্জের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ



সামাজিক প্রচারাভিযানমূলক প্রকল্প’র অবহিতকরণ সভা
ডেস্ক নিউজ:: আজ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা ও নির্বাচনী প্রচারণা কার্যক্রম পরিচালনায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হলেন হবিগঞ্জ জেলার আওয়ামীলীগ ও বিএনপির জেষ্ঠ্য পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবারএ উপলক্ষে হবিগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবে ইউএসএআইডি এবং ডেমোক্রাসি ইন্টারন্যাশনাল এর সহযোগিতায় এবং আইডিয়া’র উদ্যোগে শান্তিনে বিজয় নামে একটি সামাজিক প্রচারাভিযানমূলক প্রকল্প’র অবহিতকরণ সভার আয়োজন করা হয়।

ইউএসএআইডি এবং ডেমোক্রাসি ইন্টারন্যাশনাল এর যৌথ অর্থায়নে এবং ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের প্রকল্প দুটির আওতায় “শান্তিতে বিজয়”ক্যাম্পেইনটি পরিচালিত হচ্ছে।

জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন ও সহনশীল রাজনীতির চর্চা বৃদ্ধিতে, “শান্তিতে বিজয়”ক্যাম্পেইনটি বাংলাদেশের সকল নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল, নির্বাচনী প্রার্থী এবং সাধারণ জনগণকে সচেতন করবে ও তাঁদের অংশগ্রহণ করার সুযোগ তৈরি করবে। সভায় সঞ্চলনা ও স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন আইডিয়ার নির্বাহী পরিচালক নজমুল হক।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য তুলে ধরেন ফরহাদ আহমদ, রিজিওনাল প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর, ডেমোক্রাসি ইন্টারন্যাশনাল। অনুষ্ঠানে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগ ও বিএনপি’র রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, এনজিও প্রধান, তরুন, যুব সমাজ, সমাজকর্মী, সাংস্কৃতি কর্মীবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক বৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সিভিল সুশীল সমাজের সদস্যবৃন্দ, নারী নের্তৃবৃন্দ, আইনজীবী এবং সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র্র করে. নির্বাচনের আগে ও পরে যাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকে, শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক সহাবস্থান, নির্বাচনের দিন, নির্বাচন পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করতে রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দ ও উপস্থিত অতিথিবৃন্দ ”শান্তিতে বিজয়” প্রকল্পের সমর্থনে সহমত পোষন করেন এবং এ সংক্রান্ত একটি শপথ পাঠ করেন।

সভায় বক্তারা বলেন, ‘শান্তিতে বিজয়’ ক্যাম্পেইনের মূল লক্ষ্য হল দেশের ১৬ কোটি মানুষের জন্য শান্তিপূর্ণ ও সহনশীল রাজনীতির পক্ষে একাত্ম হওয়ার মঞ্চ তৈরি করা। রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দের সাথে বিপুল সংখ্যক সাধারণ মানুষের মতবিনিময়ের সুযোগ তৈরি করা।

আইডিয়ার নির্বাহী পরিচালক নজমুল হক বলেন, এ প্রকল্পের মূল লক্ষ্য হল নির্বাচন পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করতে দুই বৃহৎ রাজনৈতিক দলসহ সকলকে সচেতন থাকা এবং প্রত্যেকের অবস্থান থেকে সহযোগিতা করা। তিনি আইডিয়া’র পক্ষে সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। অবসরপ্রাপ্ত যুগ্ন সচিব ফজলুর রহমান বলেন, পেশাগত জীবনে অনেক নির্বাচন প্রত্যক্ষ করেছি এবং পরিচালনায় যুক্ত ছিলাম। আমার অভিজ্ঞতায় দেখেছি বেশিরভাগ মানুষ এবং রাজনৈতিক কর্মী শান্তিপূর্ণ পরিবেশের পক্ষে থাকেন।

কিছু অতি উৎসাহী মানুষ এবং রাজনৈতি কর্মী শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও নিরাপত্তা বিগ্নিত করে থাকেন। জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশের মানুষ উৎসবমূখর পরিবেশে অংশগ্রহণ করে থাকেন আমরা তাদের এই প্রতি পঞ্চবার্ষিক উৎসব যাতে শান্তিপূর্ণ হয় সেজন্য সচেষ্ট থাকতে হবে। হবিগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন বলেন, কোন রাজনৈতিক বক্তব্য দেবনা।

উপস্থিত সকল রাজনৈতিক দল, প্রার্থী ও ভোটারদেরকে আহবান জানাব নির্বাচন পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে আমরা নির্বাচন আচরণ-বিধি মেনে চলার জন্য। আমরা নির্বাচন কমিশনের পক্ষে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালনে অঙ্গীকারাবদ্ধ। নির্বাচন আচরণ-বিধি মেনে চললে শান্তিতে বিজয় প্রকল্প সফল হবে।