বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেট আদালত পাড়ায় দালাল নিষিদ্ধ



স্টাফ রিপোর্টার:: সিলেট আদালত পাড়ায় এক দালালকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সে শাহপরাণ (রহ.) থানার সাধারণ বহি কর্মকর্তা (জিআরও) সেরেস্থায় কোন নিয়োগ ছাড়াই দীর্ঘ দিন থেকে কাজ করে আসছে। গতকাল বুধবার দুপুরে ঐ দালালকে সিলেট আদালত পাড়া থেকে আটক করা হয়।

পরবর্তীতে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ে কোর্ট পুলিশের কর্মকর্তা বৃন্দের উপস্থিতিতে সবার সম্মতিক্রমে দালালের কাছ থেকে লিখিত বন্ড নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতি সূত্র। তাছাড়া ভবিষ্যতে এ ধরণের কোন অপরাধী বা দালাল পেলে তাকে ধরে আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর কাছে হস্তান্তরের জন্যও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সূত্র জানায়, আদালতে সিলেট মেট্রাপলিটন পুলিশের শাহপরাণ (রহ.) থানার জিআরও সেরেস্তায় দীর্ঘ দিন থেকে সরকারী নিয়োগ ছাড়াই কাজ করে আসছে এসএমপি’র জালালাবাদ হাওলদারপাড়ার ১৫ নম্বর বাসার বাসিন্দা ইকবাল হোসেনের ছেলে আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ উজ্জল। সে ঐ সেরেস্থায় সরকারী গুরুত্বপূর্ণ নথি লেখা থেকে শুরু করে বিভিন্ন কাগজপত্র লেখালেখি করে আসছে। কিন্তু গত সপ্তাহে সিলেট মেট্রোপলিটন আদালতে একটি মামলা দাখিল করেন জৈনক ব্যাক্তি।

ঐ মামলায় বিবাদীদের বিপক্ষে আদালত সমন ইস্যু করেন। কিন্তু উজ্জল সমন লুকিয়ে তাতে বিবাদীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা (ওয়ারেন্ট) পাঠিয়ে দেয়। এ মামলার খবর পেয়ে বিবাদী পক্ষের লোকজন আদালতে এসে খবর নিয়ে জানতে পারেন তাদের বিরুদ্ধে সমন ইস্যু হয়েছে।

কিন্ত শাহপরাণ জিআরও সেরেস্থায় থাকা উজ্জল গ্রেফতারি পরোয়ানা বানিয়ে তা দ্রুত শাহপরাণ (রহ.) থানায় পাঠায়। এ বিষয়ে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতিতে অভিযোগ করেন ভ’ক্তভোগি পক্ষ। এ বিষয়ে গতকাল বুধবার উজ্জলকে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতিতে নেয়া হলে উপস্থিত শতাধিক আইনজীবী ও কোর্ট পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার প্রণয় কুমার রায়, কোতয়ালী থানার জিআরও সুদিপ্ত রায়, শাহপরাণ (রহ.) থানার জিআরও সহ উপস্থিত সকলের আলোচনার সিদ্ধান্ত মোতাবেক উজ্জল ভবিষ্যতে আর কোন দিন কোর্ট আঙ্গিনায় প্রবেশ করবে না বা এ ধরণের আর জালিয়াতি করবে না বলে লিখিত বন্ড প্রদান করে। তাছাড়া বুধবারের গঠিত ঘটনার বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্তা নেয়ারও সিদ্ধান্ত হয়।

সিলেট জেলা আইসজীবী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ লালা জানান, জালিয়াতির অভিযোগে এক দালালের কাছ থেকে মুছলেকা নেয়া হয়েছে। সে আদালতের কিছুই নয়। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ শাপরাণ (রহ.) থানার জিআরও সেরেস্থায় কাজ করে আসছে। তাছাড়া একটি মামলায় সে সমন না পাঠিয়ে গ্রেফতারী পরোয়ানা পাঠায়।

এ ঘটনায় সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির শতাধিক আইনজীবী ও কোর্ট পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার প্রণয় কুমার রায়, কোতয়ালী থানার জিআরও সুদিপ্ত রায়, শাহপরাণ (রহ.) থানার জিআরও সহ উপস্থিত সকলের আলোচনার সিদ্ধান্ত মোতাবেক উজ্জল ভবিষতে আর কোন দিন কোর্ট আঙ্গিনায় প্রবেশ করবে না বা এ ধরণের আর জালিয়াতি করবে না বলে লিখিত বন্ড প্রদান করে। তাছাড়া ভবিষ্যতে এ ধরণের কোন অপরাধী বা দালাল পেলে তাকে ধরে আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর কাছে হস্তান্তরের জন্যও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
এ ব্যাপারে এসএমপি’র উপ-পুলিশ কমিশনার প্রণব কুমার রায় জানান, আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ উজ্জলকে বন্ড রেখে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা বা মামলা দাখিল করা হবে।