বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এস.আই.ইউ’তে “সমাজ পরিবর্তনে শিক্ষার্থী” বিষয়ক আলোচনা সভায় দুদক কমিশনার



ডেস্ক নিউজ:: “শিক্ষকরাই পারেন শিক্ষার্থীদের মধ্যে যাবতীয় মূল্যবোধকে জাগ্রত করতে। আর মূল্যবোধ জাগ্রত হলেই মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, বাল্যবিবাহ, নকল ও দূর্নীতি মূলোৎপাটন করা সম্ভব। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে সততা সঙ্ঘ গঠনের মাধ্যমে মূল্যবোধ জাগ্রত করার জন্য সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।”

আজ বুধবার সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে “সমাজ পরিবর্তনে শিক্ষার্থী” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আমেরিকান কর্ণারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দূর্নীতি দমন কমিশনের মাননীয় কমিশনার এ.এফ.এম. আমিনুল ইসলাম বলেন, ।

অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান শামীম আহমদ এর সভাপতিত্বে আইন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হুমায়ুন কবির এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর মো: মনির উদ্দিন, দুদক’র প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক মো: মোস্তফিজুর রহমান।
আরও বক্তব্য রাখেন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রশাসন ও জনসংযোগ পরিচালক তারেক উদ্দিন তাজ।

তরুণ প্রজন্মই বাংলার সব গৌরব উজ্জ্বল দিনে নেতৃত্ব দিয়েছে। বাঙ্গালীর আটচল্লিশ, বায়ান্ম, ঊনসত্তর, একাত্তর সবকিছুতেই তরুণ প্রজন্ম নেতৃত্ব দিয়েছে। এমন কি সর্বশেষ যত সামাজিক আন্দোলন হয়েছে সবকিছুতেই তরুণ প্রজন্ম সামনে থেকেছে। তরুণদের মাঝে সততা, দুর্নীতির বিরুদ্ধে মনোভাব গড়ে তুলতে শিক্ষকদের অগ্রগন্য ভূমিকা পালন করতে হবে।

বাল্য বিবাহ, দূর্নীতি, মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে তরুণদেরকেই দায়িত্ব নিতে হবে। তরুণদের মাঝে সততা ও দেশপ্রেম জাগিয়ে তুলতে পারলে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। উক্ত কথা গুলো বলেন দূর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার এ.এম.এফ আমিনুল ইসলাম। তিনি বুধবার সকালে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কর্তৃক আয়োজিত “সমাজ পরিবর্তনে শিক্ষার্থী” শীর্ষক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই কথাগুলো বলেন।
আরও উপস্থিত ছিলেন মানবিক অনুষদের ডীন প্রফেসর মুয়ীজুর রহমান, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডীন ঋষি কেশ ঘোষ, ইসিই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এক্রামুল ফারুক, সিএসই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান জনাব খালেদ হোসাইন, ইংরেজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান জাকারিয়া হাবিব সহ অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ।