সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সীমান্তিক-ইমজা অভ্যন্তরীন ক্রীড়া প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ



সিলেটে অনেক অনেক উদ্যোক্তা সৃষ্টি করতে হবে: ড. আহমেদ আল কবির

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সীমান্তিকের প্রধান পৃষ্ঠপোষক, অর্থনীতিবিদ ড. আহমেদ আল কবির বলেছেন, সিলেটে ব্যাংকে পড়ে থাকা আমানতের খুব সামান্য পরিমাণ উৎপাদনশীলখাতে ব্যয় হয়। সিলেটের লোকজন ব্যবসা বাণিজ্যে তেমন সাফল্য অর্জন করতে পারেন নি। আমাদের এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে হবে। সিলেটে অনেক অনেক উদ্যোক্তা সৃষ্টি করতে হবে। এক্ষেত্রে গণমাধ্যম কর্মীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন।
তিনি বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্যে তেমন অগ্রগতি না হওয়ায় খেলাধুলাসহ বড় আয়োজনে অনেক সময় পৃষ্টপোষক পাওয়া যায় না। ফলে এসব কাজও ব্যাহত হয়।
রোববার সন্ধ্যায় নগরের একটি হোটেলের হলরুমে ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন আয়োজিত সীমান্তিক-ইমজা অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা আহমেদ আল কবির আরও বলেন, গণমাধ্যম কর্মীদের কাজ অনেক ঝুঁকিপূর্ণ। মানসিক অনেক চাপও নিতে হয় তাদের। ফলে মাঝেমধ্যে এমন খেলাধুলার আয়োজন তাদের মানসিক সুস্থতার জন্য জরুরী। ইমজা’র এমন আয়োজনের প্রশংসা করে তিনি বলেন, এ ধরণের আয়োজনে সীমান্তিক সবসময় পাশে থাকবে। ইমজাকে সাংবাদিকদের জন্য প্রশিক্ষণ কর্মশালা আয়োজনের তাগিদ দিয়ে তিনি বলেন, প্রশিক্ষণ কর্মশালায়ও সীমান্তিক সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে।
ইমজা সভাপতি আশরাফুল কবিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ দেবু’র সঞ্চালনায় পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সদস্য ও সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহিউদ্দিন সেলিম।
মাহিউদ্দিন সেলিম বলেন, ক্রীড়াক্ষেত্রে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ অনেক সাফল্য অর্জন করেছে। এক্ষেত্রে সিলেটের সাফল্যও ঈর্ষণীয়। সিলেটে বর্তমান সরকারের আমলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম হয়েছে। বেশকয়েকটি আন্তর্জাতিক টুর্ণামেন্ট হয়েছে। পৃষ্ঠপোষকতা পেলে সিলেট ক্রীড়াঙ্গণে আরও সাফল্য অর্জন করবে।
ইমজা’র ক্রীড়া সম্পাদক শফি আহমদের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থ, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, ইমজা’র প্রাতষ্ঠাতা সভাপতি আল আজাদ, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, জেলা পরিষদ সদস্য শামীম আহমদ, যুগভেরী’র নির্বাহী সম্পাদক অপূর্ব শর্মা, শ্যামল সিলেটের বার্তা সম্পাদক আবুল মুহাম্মদ, ইমজা’র সাবেক সভাপতি সংগ্রাম সিংহ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন মন্জু, ক্রীড়া উপ কমিটির সদস্য সচিব মারুফ আহমদ প্রমুখ।
এতে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, সিলেট বিভাগীয় শাখার সভাপতি আব্দুল বাতিন ফয়সল, সিলেটের ডাকের বার্তা সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ^াস, শুভ প্রতিদিনের প্রধান বার্তা সম্পাদক মঈন উদ্দিন, ক্রীড়া লেখক সমিতি সিলেটের সভাপতি মান্না চৌধুরী, ইমজার সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দসহ ইমজার সদস্যরা।
এই টুর্ণামেন্টের ৯ টি ইভেন্ট ক্যারম একক, ক্যারম দ্বৈত, ডমিনজ, অকশন ব্রিজ, কলব্রিজ, ব্রে, টুয়েন্টি নাইন, সাপলুডু ও দাবায় সংগঠনের ৫৪ জন সদস্য অংশ নেন। এর মধ্যে ১৬ জন চ্যাম্পিয়ন ও ১৬ জন রানারআপ হন। আলোচনা পর্ব শেষে তাদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়। -বিজ্ঞপ্তি