সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মানবিকতা কি হারিয়ে গেল??



আমরা মানুষ সৃষ্ঠির সেরা জীব । মহান আল্লাহপাক আমাদেরকে আঠারো হাজার মাখলুকাতের মধ্যে শ্রেষ্ঠত্ব দিয়ে সৃষ্ঠি করেছেন । সেই সর্বশ্রেষ্ঠ মাখলুকাতের কাছ থেকে যেন মানবিকতা হারিয়ে গেছে । মানবিকতা হচ্ছে মানুষের গুরুত্বপুর্ণ বিষয় । কিন্তু মানুষ কেন জানি সেটি হারিয়ে ফেলছে । মানুষের মধ্যে একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা ভালোবাসা যেন হারিয়ে যাচ্ছে ।

গত ২৮শে অক্টোবর মৌলভীবাজারের একটি শিশু খুব বেশী অসুস্থ ছিল । সেই শিশুটিকে এম্বুলেন্স যোগে সিলেটের নেওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেছিল তার পরিবার । কিন্তু পরিবহন ধর্মঘটের কারণে সেই শিশুটিকে সময় মত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যায় নি । শিশুটি পথে মারা যায় । পরিবহন শ্রমিকদের স্বার্থের জন্য ডাকা এই ধর্মঘটের জন্য শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি ।

পরিবহণ শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বলি এম্বুলেন্স, রোগীদের আপনাদের ধর্মঘটের বাইরে রাখলেননা কেন?? এটা কি আপনাদের মানবিকতা?? নাকি আপনাদের মানবিকতা হারিয়ে গেছে । কিন্তু কয়েকদিন আগে ছাত্র আন্দোলনের সময় আমরা দেখলাম ছাত্ররা এম্বুলেন্সকে তাদের ধর্মঘটের বাইরে রেখেছিল । এমনকি তারা এম্বুলেন্সকে আলাদাভাবে যাওয়ার ব্যবস্থা করে রেখেছিল । এত ছোট ছোট বাচ্চা ছাত্রদের মানবিকতা ছিল । কিন্তু আপনারা মানবিকতার ধার ধারলেননা । আপনাদের মানবিকতা কি হারিয়ে গেছে??

আমাদের সমাজে এমন অসংখ্য ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে চলছে । যৌতুকের জন্য গৃহ বধুর আত্মহত্যা কিংবা গৃহবধুকে হত্যার ঘটনা ঘটছে । এছাড়া মতের অমিল হলে হত্যার ঘটনা গঠছে । আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশে ছিনতাই রাহাজানির ঘটনা প্রায়ই ঘটে । কিছু স্বার্থান্বেষী মহল আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আশায় যুব সমাজকে নষ্ঠ করার হাতিয়ার মাদক দ্রব্য বিক্রি করে চলছে ।এর ফলে যুব সমাজ হচ্ছে নষ্ঠ, যুবকের পরিবার হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্থ । এটা কি মানবিকতা??

এটা কি মানবিতার সংজ্ঞা?? আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানের পরিধির কারণে আমার মাথায় আসেনা । বর্তমান জামানায় উল্লেখ্যযোগ্য যোগাযোগের মাধ্যম হচ্ছে ফেইসবুক । সেই ফেইসবুকে প্রায় দেখা যায় মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা যেন কমে গেছে ।

একে অপরের প্রতি কুৎ্সা রটনা করতেছে । অনেককে আবার দেখা যায় ব্যক্তি গত শ্রত্রুতার জন্য সমাজে হেয় করার জন্য অপর ব্যক্তি কিংবা তার পরিবারের সদস্যের নামে মিথ্যা প্রচারণা করছে । ফেইসবুকে ফেইক আইডি যেন মিথ্যা অপপ্রচার কিংবা কুৎসা রটনার অন্যতম মাধ্যম । আবার অনেকে তার সামাজিক মর্যাদা কিংবা প্রতিপত্তিকে কাজে লাগিয়ে অপর নিরীহ কিংবা তার থেকে কম শক্তিশালী মানুষের অপর ক্ষমতার অপব্যবহার করছে ।

কিছু ভুমি দস্যু ক্ষমতাবান আছে তাদের ক্ষমতাকে পুজি করে অপর মানুষের বাড়ি ঘর রাস্তাঘাট জমি দখল করছে । অনেকে আবার রাস্তাঘাট বন্ধ করে অন্য মানুষের যাতায়াতে পথ বন্ধ করে দিচ্ছে । একে অপরকে হত্যা করে উল্লাসে মেতে উঠছে । তাদের আবার প্রশ্রয় দিচ্ছে সমাজের কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি ।

অনেককে আবার দেখা যায় ক্ষমতার দাপট দেখাতে গিয়ে তার শত্রুকে মিথ্যা মামলা দিয়ে দিনের পর দিন জেল কাঠায় । সেই মামলা চালাতে গিয়ে তার শত্রু পরিবার কিংবা ব্যক্তি হয় সর্বস্বান্ত । এটা মানবিকতার কোন পর্যায় পড়ে । আমরা সৃষ্ঠির সেরা জীব হয়ে আমাদের মধ্যে থেকে নৈতিকতা, মানবিকতা, সামাজিক মূল্যবোধ যেন হারিয়ে যাচ্ছে ।

এর থেকে আমাদের বেরিয়ে আসা জরুরী নয় কি?? মানবিকতার প্রকৃত ধারা আমাদের ধারণ করা জরুরী নয় কি??

নাকি আমরা আমাদের স্বার্থের কাছে সবকিছু সবকিছু বিক্রি করে ফেলেছি । নাকি আমরা এখন আর মানবিকতার ধার ধারিনা । প্রকৃত মানুষের কর্তব্য হচ্ছে মানবিকতাকে ধারণ এবং লালন করা ।

লেখকঃ আলী ফজল মোহাম্মদ কাওছার, সাবেক শিক্ষার্থী, এমসি কলেজ, সিলেট