বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

যান্ত্রীক ত্রুটিতে ৫ ঘন্টা ভোগান্তিতে পবিস কমলগঞ্জ জোনালের ৭৫ হাজার গ্রাহক



আসহাবুর ইসলাম শাওন,কমলগঞ্জ থেকে:: ৩৩ হাজার কেভি প্রধান বিদ্যুৎ লাইনের কুলাউড়া এলাকায় যান্ত্রীক ত্রুটির কারণে টানা ৫ ঘন্টা ভোগান্তিতে পড়েছিলেন মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি(পবিস) কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের অধিন ৭৫ হাজার গ্রাহক।

বৈদ্যুতিক লাইনের ইন্স্যুলেটর ভেঙ্গে মঙ্গলবার(২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টা থেকে পবিস কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয় এলাকা বিদ্যুৎবিহিন ছিল বিকাল ৪টা পর্যন্ত। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় আকস্মিকভাবে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে। ঘটনার পর পবিস কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ৩৩ হাজার কেভি প্রধান বিদ্যুৎ লাইনে ত্রুট দেখা দেওয়া বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

টানা এক ঘন্টা খোঁজ করে জানা যায় কুলাউড়া উপজেলা এলাকায় ৩৩ হাজার কেভি বিদ্যুৎ লাইনের একটি স্থানের দুটি ইন্স্যুলেটর ভেঙ্গে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়। ক্ষতিগ্রস্ত স্থানে নতুন ইন্স্যুলেটর স্থাপন করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে কিছু সময় লাগবে বলেও পবিস আঞ্চলিক অফিসের উপ-মহাব্যবস্থাপক জানিয়েছিলেন।

এর পর ভাঙ্গা ইন্স্যুলেটর সরিয়ে সেখানে নতুন ইন্স্যুলেটর স্থাপন করে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে সময় লেগে যায় ৫ ঘন্টা। বিকাল ৪টায় আবারও বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়। সকাল থেকে টানা ৫ ঘন্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় পবিস কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালয়ের কমলগঞ্জ ও কুলাউড়া উপজেলা ৭৫ হাজার গ্রাহক দুর্ভোগের পড়েছিলেন। বিশেষ করে বিদ্যুৎবিহিন অবস্থায় বাণিজ্যিক ব্যাংক সমূহ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বেশ সমস্যা হয়েছে।

মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কমলগঞ্জ আঞ্চলিক কার্যালযের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. মোবারক হোসেন সরকার বলেন, এটি একটি যান্ত্রীক ত্রুটি ছিল। এ ত্রুটি সারিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে এত সময় লেগেছে। তবে তিনি বলেন টানা ৫ ঘন্টা নয় ৪ ঘন্টা বিদ্যুৎবিহিন ছিল। তিনি আরও বলেন এ ত্রুটির কারণে একই সাথে জুড়ি ও বড়লেখা উপজেলাও বিদ্যুৎবিহিন ছিল।