বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুরোধে কোম্পানীগঞ্জে শ্রমিক সমাবেশ স্থগিত



ডেস্ক রিপোর্ট: কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের উপর সাজানো মামলা প্রত্যাহার ও আলোচিত ওসি আব্দুল হাইয়ের অপসারণের দাবিতে পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের ডাকা সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিরের অনুরোধে সমাবেশ স্থগিত করা হয় বলে জানান উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম।

এসময় তিনি বলেন, শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) উপজেলার পাড়ুয়া বাজারে স্থানীয় শ্রমিকলীগের উদ্যোগে সমাবেশ ডাকা হয়। পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম আহমদ ও আওয়ামী অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ এলাকার নিরীহ মানুষের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও দুর্নীতিবাজ ওসি আব্দুল হাইয়ের অপসারণ দাবিতে সমাবেশ আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল বাছির অনুরোধ করলে সমাবেশ স্থগিত করা হয়। সমাবেশের পরবর্তী তারিখ ও সময় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে বলে জানান তিনি।

এসময় তিনি আরো বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুরোধকে শ্রদ্ধা করে আমরা সমাবেশ স্থগিত করেছি। কিন্তু অতীব দুঃখের বিষয় যে, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিতর্কিত সাংবাদিক আবুল হোসেন তার ব্যবহৃত ইমেইল আইডি থেকে যে সংবাদ প্রেরণ করেছে তা মিথ্যা ও বানোয়াট। আবুল হোসেন সুযোগ পেলেই ওসির দালালি করে আওয়ামী নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তার যোগসাজসে পুলিশ নিরীহ মানুষের উপর মামলা দেয় বলেও জানান তিনি।

নুরুল ইসলাম বলেন, বিতর্কিত সাংবাদিক আবুল হোসেন বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে বিএনপি নেতা ছিল। পরে দলের ভাবমূতি নষ্ট করায় তাকে বিএনপি থেকে বহিস্কার করা হয়। এখন সে কোম্পানীগঞ্জে জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত। তার পাঠানো সংবাদে কেউ বিভ্রান্ত হবেননা।

সমাবেশ স্থগিতের বিয়ষটি নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল বাছির বলেন, ওসি আব্দুল হাইয়ের বিরুদ্ধে আমার করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে আজ শনিবার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রেঞ্জ অফিস) রাজিব কুমার দে কোম্পানীগঞ্জে তদন্তে আসেন। তাকে সম্মান জানিয়ে আজকের ডাকা সমাবেশ স্থগিত করার অনুরোধ করি আয়োজক ও স্থানীয় জনতার কাছে। আয়োজক ও স্থানীয়রা সাথে সাথে সমাবেশ স্থগিত করেন। পরবর্তীতে এ বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল লাইছকে অবগত করেছেন বলেও জানান উপজেলা চেয়ারম্যান।