বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

খাদিমনগরে ইউপি সদস্য দিলুকে জড়িয়ে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন



সিলেট সদর উপজেলার খাদিমনগর ইউনিয়ন পরিষদের তিনবারের সদস্য, সজ্জন ব্যাক্তিত্ব দেলোয়ার হোসেন দিলুর বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও মিথ্যা অভিযোগ করে মানহানির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী। শুক্রবার বাদ জুম্মা ছালিয়া কলারতল এলাকায় বৃহত্তর ছালিয়াবাসী আয়োজিত কর্মসূচিতে বক্তারা বলেছেন, কলারতল গ্রামের তেরা মিয়ার পরিবারের সাথে অন্যদের জায়াগা নিয়ে বিরোধ রয়েছে।

এককজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে দিলু মেম্বারসহ এলাাকার গণমাণ্য ব্যাক্তি পঞ্চায়েত করে জায়াগা নিয়ে বিরোধ নিস্পত্তি করে দিয়েছিলেন। কিন্তু ভালো কাজ করতে গিয়ে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করা হচ্ছে। তেরা মিয়ার মেয়ে রুমানা বেগম সম্প্রতি মেম্বার দেলোয়ার হোসেন দিলুকে জড়িয়ে যে মিথাচার করেছেন তা শাক দিয়ে মাছ ঢাকার মত। যে মেম্বার এলাকার সুখে দুখে সকলের পাশে থাকেন তার দ্বারা নির্যাতন ও হয়রানীর প্রশ্ন কাল্পনিক গল্পছাড়া কিছুই নয়। বরং তেরা মিয়ার পরিবারের সদস্যরা অন্যোর জায়গা দখল করে আছে।

খাদিমনগর ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও এনায়েত আহমদের পরিচালনায় মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূল কমিটির সভাপতি মাসুক মিয়া, যুবলীগ নেতা ইকলাল আহমদ, ইউনিয়ন পূজা কমিটির সভাপতি কানাই বিশ্বাস, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি আরিফ আহমদ সুমন, ছালিয়া পশ্চিমপাড়া সাধীন বাংলা যুবসংঘের সাবেক সভাপতি আব্দুল আহাদ, এলাকার মুরব্বি তৈমুছ আলী, নয়াটিলা পুজামন্ডপের সাধারণ সম্পাদক ধীরু নম, মুরব্বি সাবাজ মিয়া, মৌলানা সৈয়দুর রহমান, ছালিয়া জামে মসজিদের ইমাম নুর আহমদ, সদর উত্তর লেবার সমবায় সমিতির সভাপতি ছমির মিয়া, মুরব্বি লালু মিয়া, হাফিজ মাসুম আহমদ, দুদু মিয়া, এমদাদ আহমদ, নুর মিয়া, রঙিটিলা সোনার বাংলা সংঘের সাবেক সভাপতি আব্দুল হক, মুর্শেদ আহমদ ও আরব আলী।

অন্যদের মধ্যে জুনেদ আহমদ, রুবেল আহমদ, রাজু আহমদ, খোকন আহমদ, রাসেল মিয়া, ইমরান আহমদ, আবুল কালাম, আব্দুল ওয়াহিদ, জালাল আহমদ, নজরুল ইসলাম, সাবেল আহমদ, লাহিন আহমদ, শিপলু মিয়া, ইয়ামিন আহমদ, হারিছ আলীসহ কয়েকশ এলাকাবাসাী উপস্থিত ছিলেন। -বিজ্ঞপ্তি