বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তি দাবি জানিয়েছে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রদল



বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গত আট মাসেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে আবদ্ধ করে রাখা এবং গুরুতর অসুস্থ সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিশেষায়িত হাসপাতালে সুচিকিৎসা ও নি:শর্ত মুক্তি দাবীতে শুক্রবার রাতে দক্ষিণ সুরমা ছাত্রদলের এক মতবিনিময় সভায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ছাত্রদলের নেতারা।

সিলেট মহানগর ছাত্রদল নেতা গোলাম রব্বনির সভাপতিত্বে সিলেট জেলা ছাত্রদল নেতা জায়েদ আহমদ ও মেহেদী হাসান‘র যৌথ পরিচালনায়, এসময় উপস্থিত বক্তব্য রাখেন সাবেক জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সদস্য ও জেলা যুবদল নেতা সাদেক আহমদ, জেলা যুবদল নেতা ফয়জুল ইসলাম, নিজাম উদ্দিন নিয়াজ, নুর আলী, আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা ও মহানগর ছাত্রদল নেতা জমির হোসেন, আকরাম হোসেন, মনজুর আহমদ, সাইদুল ইসলাম, নাহিদ আহমদ, জি এইচ অপু, সামাদ আহমদ, কয়ছর আহমদ, জাকির হোসেন, নয়ন আহমদ, ইসতিয়াক আহমদ, জুনেদ আহমদ, জুনায়েল আহমদ, তারেক আহমদ, নুফায়েজ আহমদ, সায়েফ আহমদ, আলী আহমদ, বেলাল আহমদ, হারুন মিয়া, জালালা আহমদ, ছালেক আহমদ,ময়নুল ইসলাম, আলাউদ্দিন, আব্দুল হাকিম, নিয়াজ আহমদ ও রাব্বি আহমদ প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বক্তব্যে বলেন বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপি’র চেয়ারপারসন এবং বাংলাদেশের একজন জ্যেষ্ঠ নাগরিক। একজন বর্ষীয়ান নেত্রীকে সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করা মৌলিক মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। আমরা মনে করি বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে উদাসীনতা দেখিয়ে সরকার একটি নিন্দনীয় ও কলঙ্কজনক দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে।

আমরা সরকারের এ হীন প্রচেষ্টারও প্রতিবাদ এবং নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা জানতে পেরেছি যে, গুরুতর অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়ার দ্রুত সুচিকিৎসার ব্যবস্থা না করা হলে তার বড় রকমের শারীরিক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। এমনটি হোক এটি কারো কাম্য নয়। তাই বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য তাকে অতি দ্রুত বিশেষায়িত হাসপাতালে স্থানান্তর করাসহ তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি জানানো হয়। -বিজ্ঞপ্তি