সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জগন্নাথপুরে জমে উঠেছে ঈদ বাজার



মো.শাহজাহান মিয়া, জগন্নাথপুর:: সুনামগঞ্জের প্রবাসী অধ্যূষিত জগন্নাথপুর উপজেলায় অবশেষে জমে উঠেছে ঈদ বাজার। ২০ আগষ্ট সোমবার সরজমিনে জগন্নাথপুর সদর বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারের প্রতিটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভীড় রয়েছে। বিশেষ করে কাপড়, জুতা ও কামারদের দোকানে ক্রেতাদের সবচেয়ে বেশি ভীড় লক্ষ করা গেছে।

জগন্নাথপুর সদর বাজারের নিউ ঝলক ফ্যাশন, উজ্জল গার্মেন্টস, সালমান ফ্যাশন, বিগ বাজার, ঝলক ফ্যাশন, বিন্দুজ ফ্যাশন, মাসুমা গার্মেন্টস ও ফ্যামেলী শপ সহ বিভিন্ন বিপনী বিতানে ক্রেতারা তাদের চাহিদা মতো কেনাকাটা করতে দেখা যায়। এর মধ্যে ফুটপাতের কাপড়ের দোকানগুলোতে কমদামে জামা-কাপড় কিনতে ক্রেতাদের ভীড় রয়েছে।

এ ব্যাপারে নিউ ঝলক ফ্যাশনের মালিক কদ্দুছ মিয়া বলেন, অন্য বছরের তুলনায় এবার বেচাকেনা কম হচ্ছে। উজ্জল গার্মেন্টের মালিক রাজন কুমার দাশ বলেন, এবার পাউন্ডের দাম কমে যাওয়ায় প্রবাসী অধ্যূষিত জগন্নাথপুরে তার প্রভাব পড়েছে। যে কারণে এবার কাপড়ের ব্যবসায় ধস নেমেছে।

এছাড়া ঈদ উপলক্ষে বিভিন্ন রকমের জুতা কিনতে জুতার দোকানগুলোতেও ক্রেতাদের ভীড় দেখা গেছে। ক্রেতারা তাদের চাহিদা মতো ছোট ও বড়দের জুতা কিনতে দেখা যায়। এর মধ্যে তরুণীদের কাপড় ও জুতার পছন্দের চাহিদা মেটাতে গিয়ে অভিভাবকদের এক দোকান থেকে অন্য দোকানে বারবার ছুটাছুটি করতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে আলিছা এন্ড জিনান সুজ নামের জুতার দোকানের মালিক মামুন হোসেন বলেন, ঈদ উপলক্ষে ক্রেতাদের উপস্থিতি বেশি থাকলেও বেচাকেনা কম হচ্ছে।

এদিকে-বিশেষ করে কোরবানীর ঈদে পশু জবাইয়ের জন্য দা ও ছুরি সহ বিভিন্ন ধারালো যন্ত্রপাতি বানাতে ও মেরামত করাতে কামারদের দোকানে ক্রেতাদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। এ ব্যাপারে মনা কামার বলেন, কাস্টমারদের মাল দিয়ে শেষ করা যাচ্ছে না। এতে ভাল ব্যবসা হচ্ছে।

জানতে চাইলে জগন্নাথপুর বাজার সেক্রেটারি জাহির উদ্দিন ও সহ-সেক্রেটারি জুনেদ আহমদ ভূইয়া বলেন, অবশেষে জগন্নাথপুরে ঈদ বাজার জমে উঠেছে। এছাড়া সব ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে বাজার তদারক কমিটির পক্ষ থেকে আলাদা নজরদারি রয়েছে।