মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
চাঁদ দেখা সাপেক্ষে সৌদি আরবে আজ ৯ জিলহজ পালিত হলো পবিত্র হজ  » «   কমলগঞ্জে পরকিয়ার জেরে পাষন্ড স্বামীর হাতে প্রাণ গেল এক গৃহবধুর !  » «   বিয়ানীবাজার থানায় বিত্তশালীদের মামলা রেকর্ড, দিনমজুরের মা লাঞ্ছিত!  » «   ধর্মপাশায় এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সেই গোপন অস্ত্র প্রদর্শণ করল হিজবুল্লাহ  » «   জগন্নাথপুরে জমে উঠেছে ঈদ বাজার  » «   ওসমানীনগরে পশু জবাই করার সরঞ্জামাদী তৈরীতে ব্যস্ত কামারিরা  » «   হা‌সিনা সরকার আবারো বিনা ভোটে ক্ষমতায় যাওয়ার নীল নকসা করছে: মিজানুর রহমান চৌধুরী  » «   জগন্নাথপুরে নব-বধূকে এসিড খাইয়ে হত্যার চেষ্টা  » «   সিলেটের সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে গরু নামাচ্ছে চোরাকারবারী সিন্ডিকেট  » «  

জগন্নাথপুরে সরকারি খাদ্য গোদামে ধান বেচাকেনার ধূম



জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে সরকারি খাদ্য গোদামে ধান বেচাকেনার ধূম পড়েছে। প্রতিনিয়ত দীর্ঘ লাইন দিয়ে কৃষকরা তাদের ধান সরকারের কাছে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করছেন।

জানাগেছে, এবার কৃষকদের কাছ থেকে মোট ৬০০ টন ধান ক্রয় করবে সরকার। ২৬ টাকা কেজি দরে জনপ্রতি এক টন করে ধান ক্রয় করা হচ্ছে। অন্য বছরের তুলনায় এবার জগন্নাথপুরে ধান ক্রয়ের বরাদ্দ অনেক কম থাকায় কৃষকরা তাদের ধান বিক্রি করতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন।

১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার সরজমিনে দেখা যায়, কে কার আগে গোদামে ধান বিক্রি করবেন এ নিয়ে কৃষকদের মধ্যে রীতিমতো প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে গেছে। কারণ এবার জগন্নাথপুরে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। এবার কম-বেশি সকল কৃষকের গোলায় ধান রয়েছে। স্থানীয় হিসেবে খেলা বাজারে বর্তমানে ৭ থেকে ৮শ টাকা মণ দরে ধান বিক্রি হচ্ছে। এক্ষেত্রে সরকার প্রতি মণ ধান ১০৪০ টাকা দরে কৃষকদের কাছ থেকে ক্রয় করছে। তাই উচ্চ মূল্যে সরকারের কাছে ধান বিক্রি করতে কৃষকরা মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর খাদ্য গোদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) আবদুল হান্নান কামাল বলেন, এ পর্যন্ত প্রায় ২৪ টন ধান কেনা হয়েছে। তবে মধ্যস্বত্ব ভোগী ও ব্যবসায়ী ব্যতিত এবং সকল প্রকার প্রভাব মুক্ত পরিবেশে প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে উজ্জ্বল বর্ণের মান সম্পন্ন ধান ক্রয় করা হচ্ছে।