মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জগন্নাথপুরে আদম ব্যাপারীর খপ্পরে পড়ে যুবক সর্বশান্ত



জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে আদম ব্যাপারীর খপ্পরে পড়ে এক যুবক সর্বশান্ত হওয়ার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
জানাগেছে, ২০১৭ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হবিবপুর-কিশোরপুর গ্রামের আবু বক্কর আলীর ছেলে সাহজাদ আলী অপুকে সলমান আইল্যান্ড নামক দেশে পাঠানোর প্রস্তাব দেয় হবিবপুর কোনাপাড়া গ্রামের মৃত নইম উল্লার ছেলে আবদুল কাইয়ূম ও একই গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে ফিরোজ আলী।

এতে সহজ-সরল সাহজাদ আলী অপু তাদের প্রস্তাবে বিদেশ যেতে রাজি হলে সাড়ে ৭ লক্ষ টাকার বিনিময়ে তাদের মধ্যে চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী সাহজাদ আলী অপুকে একটি কোম্পানীতে চাকুরি দেয়ার কথা ছিল। এক পর্যায়ে চলতি ২০১৮ সালের ১৮ এপ্রিল সাহজাদ আলী অপুকে বিদেশ পাঠানো হয়। বিদেশে যাওয়ার পর অপু জানতে পারে এ নামের কোন কোম্পানী নেই এবং তাকে কোন চাকুরি দেয়া না হওয়ায় সে প্রতিবাদ করে।

এতে আদম ব্যবসায়ী আবদুল কাইয়ূম চক্র ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে একটি রুমে বন্ধি করে আরো ১০ লক্ষ টাকা দেশ থেকে নিয়ে তাদেরকে দেয়ার জন্য নির্যাতন করতে তাকে। এ সময় অপু কৌশলে পালিয়ে প্রাণরক্ষা করে দেশে ফিরে আসে এবং প্রতারক আদম ব্যাপারীদের কাছে তার দেয়া টাকা ফেরত চাইলে তাকে উল্টো প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

এ ঘটনায় সর্বশান্ত হওয়া যুবক সাহজাদ আলী অপু বাদী হয়ে জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হবিবপুর-কোনাপাড়া গ্রামের মৃত নইম উল্লার ছেলে আদম ব্যাপারী চক্রের হোতা আবদুল কাইয়ূম, একই গ্রামের মৃত রুস্তম আলীর ছেলে ফিরোজ আলী ও জামালগঞ্জ থানার জালাবাজ গ্রামের উস্তার আলীর ছেলে মনির হোসেন মঞ্জু সহ ৩ জনকে আসামী করে সুনামগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলাটি তদন্তের জন্য জগন্নাথপুর থানায় আসে। এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর থানার ওসি মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন,এ মামলায় তদন্তক্রমে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।