বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে এক ব্রাজিলিয়ান ভক্তের বাড়ীতে দর্শনার্থীর ঢল



আসহাবুর ইসলাম শাওন, কমলগঞ্জ থেকে:: ব্রাজিল ফুটবল দলের সমর্থক মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের সাংবাদিক শাহীন আহমেদের বাড়ি এখন স্থানীয়ভাবে ব্রাজিলিয়ান বাড়ী হিসেবেই পরিচিত। বাড়ীর দিকে তাকালেই চোঁখে পড়বে শুধু ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা। ওই বাড়িতে এখন শোভা পাচ্ছে ব্রাজিলের শতাধিক জাতীয় পতাকা।

টিন দিয়ে করা বাড়ীর সীমানায় রং দিয়ে অংকন করা হয়েছে ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা। প্রতিদিন শত শত ব্রাজিল সমর্থকের ছবি উঠার স্থানে পরিনত হয়েছে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের কামুদপুর গ্রামের শাহীন আহমেদের বাড়ী।

বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় শোভা পাচ্ছে পছন্দের দলের জাতীয় পতাকা। সারা দেশের ন্যায় কমলগঞ্জ উপজেলায়ও টাঙ্গানো হয়েছে পছন্দের দলের জাতীয় পতাকা। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশী শোভা পাচ্ছে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার জাতীয় পতাকা। শমশেরনগর-শ্রীমঙ্গল সড়কের নিকটবর্তী কামুদপুর গ্রামে অবস্থিত ব্রাজিল ফুটবল দলের সমর্থক কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বর্তমান যুগ্ম আহবায়ক সাংবাদিক শাহীন আহমেদ এর বাড়ী।

মেইন সড়ক থেকে তার বাড়ীর উঠান পর্যন্ত রাস্তার দু পাশে টাঙ্গানো রয়েছে শতাধিক ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা। সাংবাদিক শাহীন আহমেদ জানান, ছোট বেলা থেকেই তিনি ব্রাজিল ফুটবল দলের সমর্থক। প্রতি বছর বিশ্বকাপ আসলে এভাবেই নিজ বাড়ীতে ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা টাঙ্গান।

এ বছর তার ছোট ভাই ক্রিকেটার বাবলু আহমেদ এর উৎসাহে পুরো বাড়ীতে ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা টাঙ্গিয়েছেন। পাশাপাশি টিন দিয়ে করা বাড়ীর সীমানায় রং দিয়ে অংকন করা হয়েছে ব্রাজিলের জাতীয় পতাকা। পতাকা টাঙ্গানোর পর থেকেই প্রতিদিন শত শত ব্রাজিল সমর্থকরা তার বাড়ীতে এসে সেলফি উঠছেন। কখনো দল বেঁধে কখনো একা একা ব্রাজিল সমর্থকদের আনাগোনা দেখা যায় তার বাড়ীতে। ব্রাজিল ফুটবল দলের প্রতি ভালবাসা থেকেই তিনি এভাবে বাড়ীকে সাজিয়েছেন।

জানা যায়, মৌলভীবাজার জেলার মধ্যে সাংবাদিক শাহীন আহমেদের বাড়িটি এখন ব্রাজিলিয়ান বাড়ী হিসেবেই পরিচিত। তার বাড়ীতে ছবি উঠতে এসে অনেককেই আনন্দ উল্লাস করতে দেখা যায়। ব্রাজিলের খেলার দিন বাড়ীর সামনে দোকানে সকল ব্রাজিল সমর্থকরা একত্রিত হয়ে খেলা উপভোগ করেন।