সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
টরোন্টোতে এলোপাতাড়ি গুলিতে শিশুসহ আহত ৯, বন্দুকধারীর আত্মহত্যা  » «   সিলেটে গ্রেফতার শুরু  » «   নগর জুড়ে টেবিল ঘড়ির সমর্থনে গণসংযোগ  » «   সংবাদ সম্মেলনে: এমপি মানিক রাজাকারের সন্তান তার ভাই সকল অপকর্মের হোতা  » «   মানুষ তাঁর সৎকাজ ও সদাচরণের মাধ্যমে অন্যের মনে স্থায়ী আসন করে নিতে পারে  » «   বিয়ানীবাজারের বালিঙ্গা বাজারে এনআরবি ব্যাংকের আউটলেট এজেন্টের উদ্বোধন  » «   কামরানের বিরুদ্ধে ফের আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ আরিফের  » «   ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারের স্বার্থেই ধানের শীষে ভোট দেওয়ার আহবান ব্যবসায়ীদের  » «   বখাটের উত্যক্ত অতিষ্ঠ কলেজ ছাত্রী নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি  » «   ৩২ ধারা থেকে গুপ্তচরবৃত্তির বিষয়টি বাতিল হয়েছে: মোস্তাফা জব্বার  » «  

কুলাউড়ায় ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে ধরা পড়লেন রেল প্রকৌশলী এরফানুর



শরীফ অাহমেদ, মৌলভীবাজার:: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অভিযানে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া রেলওয়ে স্টেশনে ঘুষের টাকা নেওয়ার সময় হাতেনাতে ধরা পড়লেন রেলওয়ের উর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী এরফানুর রহমান (৫৫)।

গতকাল মঙ্গলবার (৩জুলাই) রাত ৯টার দিকে কুলাউড়া জংশন রেলস্টেশনে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের একটি দল এরফানুরকে ঘুষের ১০ হাজার টাকাসহ আটক করে। পরে এরফানুরকে কুলাউড়া রেল পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে দুদক ।

এরফানুর রহমানের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার নাওঘাট এলাকায়। তিনি বাংলাদেশ রেলওয়ে কুলাউড়া সেকশনের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী (পথ) পদে দায়িত্বরত।

এ ঘটনায় দুদকের হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. নুরুল হুদা বাদি হয়ে কুলাউড়া রেলওয়ে থানায় (জিআরপি) মামলা দায়ের করেছেন।

দুদক ও রেল পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ রেলওয়ের কুলাউড়া সেকশনের প্রকৌশল বিভাগের ওয়েম্যান আবুল হোসেন শারীরিক অসুস্থতার জন্য এরফানুরের কাছে ছুটি চান। এরফানুর ছুটির জন্য ১২ হাজার টাকা করে ঘুষ দাবি করেন আবুল হোসেনের কাছে। এ বিষয়ে আবুল হোসেন দুদকের শরণাপন্ন হন। গতকাল রাত নয়টার দিকে কুলাউড়া রেলস্টেশনের মাস্টারের কক্ষে আবুলের কাছ থেকে ঘুষ হিসেবে ১০ হাজার টাকা নিয়ে পাঞ্জাবির পকেটে রাখেন এরফানুর। সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত থাকা দুদকের হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মলয় কুমার সাহার নেতৃত্বে ছয় সদস্যের একটি দল ঘুষের টাকাসহ এরফানুরকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন।

হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মলয় কুমার সাহা বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মোবাইলে জানান, আবুল হোসেন আটক এরফানুরের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ করেন। মঙ্গলবার আমিসহ ছয় সদস্যের একটি দল অভিযান চালিয়ে কুলাউড়া রেল স্টেশনে অভিযান চালিয়ে এরফানুর রহমানকে ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে ধরে ফেলি। এরফানুর কৃর্তক ঘুষের টাকা চাওয়ার একাধিক তথ্য আমাদের কাছে রয়েছে। এব্যাপারে তাঁর বিরুদ্ধে রেলওয়ে থানায় মামলা করা হয়েছে।

কুলাউড়া জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল মালেক বুধবার দুপুর ১২টার দিকে মোবাইলে জানান, এরফানুরকে ঘুষের ১০হাজার টাকাসহ দুদকের একটি টিম আটক করে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছেন। তাঁর বিরুদ্ধে দুদকের হবিগঞ্জ-মৌলভীবাজার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. নুরুল হুদা বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এরফানুর রহমানকে মৌলভীবাজার আদালতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।