বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে পুলিশের উপর হামলায় এসআইসহ ৪ পুলিশ আহাত



হাতকড়া পড়া অবস্থায় আসামী ছিনতাই: ৬ ঘন্টা পর আসামীসহ আটক-৫

আসহাবুর ইসলাম শাওন, কমলগঞ্জ:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ১২ মামলার এক পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসার সময় সংঘবদ্ধদল হামলা চালিয়ে হাতকড়াসহ আসামীকে ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানে ৬ ঘন্টা পর ছিনিয়ে নেওয়া আসামীসহ ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ। হামলায় একজন এসআই ও একজন এএসআইসহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। গত শনিবার(৩০ জুন) রাত সাড়ে ৯টায় কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের ভেড়াছড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

কমলগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, ভেড়াছড়া গ্রামের রহমান মিয়ার ছেলে সোয়েব আহমদ(৩৮) ৯টি জিআর ও ৩টি সিআর মামলার পলাতক আসামী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে গ্রেফতারী পরোয়ানা। শনিবার রাত সাড়ে ৯টায় ভেড়াছড়া গ্রামের লিয়াকত মিয়ার দোকানের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করেন উপ-পরিদর্শক(এসআই) জাকির হোসেন ও উপ-সহকারী পরিদর্শক(এএসআই) শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল।

সোয়েবকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসার সময় এ গ্রামের জুবের মিস্ত্রীর বাড়ির সামনে আসা মাত্রা ৩০/৩৫ জনের সংঘবদ্ধ দল পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে আসামী হাতকড়া পরা অবস্থায় সোয়েবকে ছিনিয়ে নেয়। হামলায় উপ-পরিদর্শক জাকির হোসেন(৫৭), উপ-সহকারী পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম(৩৮), ৮৩৩ নং পুলিশ সদস্য মামুনুর রশীদ(২৫) ও ৭৫৫ নং পুলিশ সদস্য আব্দুল মজিদ(২৮) আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনার পর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার(কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সার্কেল) মো: আশরাফুজ্জামানের উপস্থিতিতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে ভেড়াছড়া গ্রামসহ আশপাশের গ্রামে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ অভিযানের ৬ ঘন্টা পর ভোর রাত সাড়ে ৩টায় ছিনিয়ে নেওয়া আসামী সোয়েব আহমদসহ আরও ৪ জনকে আটক করে পুলিশ। আটক অন্যরা হল লিয়াকত মিয়া(৩৭), লুৎফুর(৪০), শাহাবউদ্দীন(২৯) ও লাল মিয়া(৪৫)। কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো: মোকতাদির হোসেন পিপিএম আসামী ছিনিয়ে নেয়া ও পরে ছিনিয়ে নেওয়া আসামীসহ আরও ৪ জনকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরও বলেন মূল আসামী ও গ্রেফতার হওয়া আরও ৪ জনসহ গং একটি নতুন মামলা হবে। তদন্তপূর্বক পুলিশের উপর হামলাকারী প্রকৃতদের ব্যক্তিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।