শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কোতোয়ালী থানার প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত  » «   জগন্নাথপুরে ছাত্রদল নেতাকে ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক করায় ১১ সদস্যের পদত্যাগ !  » «   খাদিমনগরে ইউপি সদস্য দিলুকে জড়িয়ে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন  » «   কারবালার আত্মাদান হলো জালিমের সামনে আল্লাহর বাণী প্রচারে সর্বোত্তম দৃষ্টান্ত: রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী  » «   খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই বিচার চালিয়ে যাওয়া ন্যায়বিচার পরিপন্থি: ফখরুল  » «   বিশ্বনাথে নারীদের ত্রি-মাসিক সেলাই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন  » «   সিলেটে শিশু অপহরণ ও ধর্ষণ : ৬ দিনপর রংপুর থেকে উদ্ধার  » «   সিলেট আদালতে স্বীকারোক্তি : ধর্ষণের পর পানিতে চুবিয়ে রুমিকে হত্যা  » «   ওসমানীনগরে প্রানীসম্পদ ও ভেটেনারি হাসপাতালের নবনির্মিত ভবন উদ্ভোধন  » «   ছাতকে সেচ্ছাশ্রমে কাঁচা সড়ক সংস্কার  » «  

পাঁচ জনকে পেছনে ফেলে কামরানের মনোনয়ন জয়: নগরীতে আনন্দ মিছিল



শেখ আব্দুল মজিদ:: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকার মাঝি হলেন কামরান। আসন্ন ৩০ জুলাইয়ের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মেয়র পদে দলীয় সমর্থনের জন্য কেন্দ্র থেকে ৬ টি মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সিলেট আওয়ামী লীগ নেতারা। এই ছয় জনের পাঁচজনকে পেছনে ফেলে কেন্দ্র থেকে মনোনিত হলেন সাবেক মেয়র ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় গণভবনে স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ তথ্যটি নিশ্চিত করেন বদরউদ্দিন আহমদ কামরান।

এর পূর্বে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক কাউন্সিলর ফয়জুল আনোয়ার এবং শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ও টানা তিনবারের কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ। এছাড়া সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম। এই পাঁচ প্রার্থীকে পেছনে ফেলে দলীয় মনোনয়ন পেলেন কামরান।

এদিকে, গত মঙ্গলবার থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়ন বিক্রি শুরু হয়। বৃহস্পতিবার মনোনয়ন সংগ্রহ করা নেতাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন। ফলে এদের মধ্যে থেকেই কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতারা চূড়ান্ত করেন দলীয় প্রার্থী। এর পূর্বে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক নেতাদের পাশাপাশি দলের শীর্ষ নেতাদের বেশিরভাগই এখন ঢাকায় অবস্থান করেন। তৃণমূলের নেতাকর্মীরাও তাকিয়ে ছিলেন ঢাকার সিদ্ধান্তের দিকে। কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন- এই সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় ছিলেন সিলেট আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা।

মঙ্গলবার থেকে শুরু হয় আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র বিতরণ। বুধবার আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান ও ক্রীড়া সংগঠক মাহিউদ্দিন সেলিম। এরআগে মঙ্গলবার মেয়র পদে প্রার্থী হতে ধানমন্ডি কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন কিনেন দলটির মহানগর সাধারণ সম্পাদক আসাদউদ্দিন আহমদ।

গত সোমবার মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় মেয়র প্রার্থী হিসেবে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলোয়ার, অধ্যাপক জাকির হোসেন এবং শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদের নাম কেন্দ্রে প্রেরণ করা হয়। এই পাঁচজনই দলই মনোনয়ন সংগ্রহ করবেন বলে জানা গেছে। এদের বাইরে মাহিউদ্দিন সেলিমও আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। মনোনয়ন সংগ্রহ করা নেতাদের মধ্য থেকে আজ একজন দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে আওয়ামী লীগ।

সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, গত নির্বাচনে পরাজিত হলেও আমি সবসময় জনগনের পাশে থেকেছি। জনগণ এবার মূল্যায়ন করবে। নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করে সিলেট নগরবাসী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার প্রদান করবে।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ জানান, দলিয় সিদ্ধান্তই আমাদের সিদ্ধান্ত। তাই আমরা সবাই ঐক্য বদ্ধ হয়ে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীকে অবশ্যই বিজয়ী করব। তিনি আরো জানান, নৌকাকে বিজয়ী করতে সর্ব মহলের সহযোগিতা একান্ত প্রয়োজন। তাই নগরবাসিকে আমরা সকল সময় পাশে চাই।

প্রসঙ্গত, আগামী ৩০ জুলাই সিলেট সহ তিন সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত ১৩ জুন এসব সিটির নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ২৮ জুন, মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ১-২ জুলাই, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৯ জুলাই, প্রতীক বরাদ্দ হবে ১০ জুলাই। এবছর সিলেট নগরীতে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ২১ হাজার ৭৩২জন। যা গত ৫ বছরে বেড়েছে ২০ হাজার ৬০৭ জন। সাথে সাথে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৬টি বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১৩৪টি।

সিলেটে কামরানকে নিয়ে শোডাউন:

নৌকার টিকিট নিয়ে সিলেটে ফেরার পর আওয়ামী লীগ প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানকে নিয়ে সিলেটে শোডাউন দিয়েছে নেতা-কর্মীরা। বিকেলে শতাধিক মোটরসাইকেলে বহন নিয়ে কামরানকে নিয়ে এই শোডাউন দেওয়া হয়।
দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর শনিবার সকালে ঢাকা থেকে সড়কপথে সিলেটে রওয়ানা দেন কামরান। তার আগেই স্থানীয় যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কামরানের মনোনয়নপ্রাপ্তিতে আনন্দ মিছিলের আয়োজন করে। তারা নগরীর রেজিস্ট্রারী মাঠে জড়ো হয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে চন্ডিপুলস্থ আব্দুস সামাদ আজাদ চত্বরে যায়। সেখানে বিকেল সাড়ে ৪ টার এসে কামরান পৌছলে নেতা-কর্মীরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।
এ সময় এক সংক্ষিপ্ত ভাষনে কামরান দলীয় প্রাপ্তিতে সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন- জাতিরজনকের কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার মাধ্যমেই সিলেটবাসীকে নৌকা উপহার দিয়েছেন। আসন্ন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় নেতাকর্মী ও নগরবাসীকে নিয়ে এক সঙ্গে মাঠে নামবেন।
এদিকে- কামরানকে নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীরা মোটরসাইকেল শোডাউন করে তার মাছিমপুরস্থ বাসায় নিয়ে আসেন। সেখানেও বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।