রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

বাসদ নেতা জাহেদুল হক মিলুর মৃত্যু বাম আন্দোলনের এক অপূরণীয় ক্ষতি: কমরেড আবু জাফর



বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি কমরেড এডভোকেট জাহেদুল হক মিলুর মৃত্যুতে দেশের বাম আন্দোলনে এক অপূরণীয় শূণ্যতা ও ক্ষতি হয়েছে বলে তাঁর শোকসভায় বক্তারা বলেছেন।
আজ বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) সিলেট জেলা সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের উদ্যোগে জাহেদুল হক মিলুর স্মরণে বিকেল চার টায় দলীয় কার্যালয়ে শোকসভা অনুষ্টিত হয়।

শোকসভায় বাসদ শ্রমিক ফ্রন্টের সিলেট জেলা সভাপতি আবু জাফরের সভাপতিত্বে ও জেলা সদস্য প্রণব জ্যোতি পালের পরিচালনায় আলোচনা করেন, বাসদ জেলা সদস্য জুবায়ের আহমদ চৌধুরী সুমন, শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা সাধারন সম্পাদক শাহজান আহমদ, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র সিলেট জেলা আহবায়ক নাজিকুল ইসলাম রানা, ছাত্র ফ্্রন্ট মহানগর সভাপতি পাপ্পু চন্দ প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা শাখার নেতা মামুন ব্যাপারী, মাহবুব হোসেন, ছাত্র ফ্্রন্ট মহানগর নেতা বদরুল আমিন, সন্জয় শর্মা, অমৃত মোহন্ত প্রমুখ।

শোকসভার আগে পার্টি অফিস প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাহেদুল হক মিলুর অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তাঁর প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন শেষে রেড স্যালুট দেওয়া হয়।
শোকসভায় সভাপতির বক্তব্যে কমরেড আবু জাফর বলেন, পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট সভাপতি, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সভাপতি কমরেড এডভোকেট জাহেদুল হক মিলু ছিলেন আজীবন সংগ্রামী বিপ্লবী। তিনি জীবনভর শ্রমজীবী ও কৃষকের অধিকার আদায়ের নেতৃত্ব দিয়েছেন।
তিনি বলেন, জাহেদুল হক মিলুর মৃত্যুতে দেশের বাম আন্দোলনে এক অপূরণীয় শূণ্যতা ও ক্ষতি হয়েছে।
আলোচকরা বলেন, জাহেদুল হক মিলুর অসময়োচিত দুঃখজনক প্রয়াণে আমরা গরভীরভাবে শোকাহত। তিনি মানবমুক্তির মহান আদর্শনিষ্ঠায় আজীবন সংগ্রামে ব্রতী ছিলেন।
তাঁরা আরও বলেন, শোককে শক্তিতে পরিণত করে তাঁর দেখানো সংগ্রাম এগিয়ে নিতে প্রত্যেকের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ সাধ্যে আমরা সবাই মিলে তাঁর সংগ্রামী জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতে পারি।

উল্লেখ্য, জাহেদুল হক মিলু গত ১৩ মে ২০১৮ ভোরে উলিপুর থেকে কুড়িগ্রাম আসার পথে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হয়ে প্রথমে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর রংপুর মেডিকেল কলেজ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে ১৩ জুন দুপুর ১২টা মিনিটে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেছেন।