রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

কমলগঞ্জে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধের ভাঙ্গন দিয়ে ফসলি জমিতে পানি প্রবেশ



আসহাবুর ইসলাম শাওন, কমলগঞ্জ:: টানা দুই দিনের বৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ধলাই নদীর পানি অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়ে বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত ১টি স্থানে বাঁধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করছে ফসলি জমিতে। কমলগঞ্জ উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধের ৯টি স্থান ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

অবস্থার আরও অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। সৃৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে গত সোমবার(১১ জুন) সকাল থেকে মঙ্গলবার(১২ জুন) সারাদিন অবিরাম বৃষ্টি হচ্ছে। ফলে মঙ্গলবার ভোর থেকে ধলাই নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। মঙ্গলবার বেলা আড়াইটায় কমলগঞ্জের ধলই সেতু এলাকায় ধলাই নদীর পানি বিপদ সীমার অনেক উপর দিয়ে প্রাবহিত হয়।

কমলগঞ্জে কর্মরত পানি উন্নয়ন বোর্ডের পর্যবেক্ষক আব্দুল আউয়াল জানান এখানে ধলাই নদীর পানি বিপদ সীমার ২৫ সে:মি: উপর দিয়ে প্রাবাহিত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন যেভাবে অবিরাম বৃষ্টি হচ্ছে ও তাতে ধলাই নদীর পানি বেড়ে যাবে। মঙ্গলবার বেলা আড়াইটায় কমলগঞ্জ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের করিমপুর গ্রাম এলাকায় ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করছে ফসলি জমিতে।

দ্রুত গতিতে পানি বেড়েই চলেছে। কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো: জুয়েল আহমদ এ ভাঙ্গনের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এর ফলে এ গ্রামের আড়াই’শ মানুষ পানি বন্ধী হয়ে পড়েছে। কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর, ইসলামপুর কমলগঞ্জ সদর ও আদমপুর ইউনিয়নে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধের ৯টি স্থান ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে। কমলগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুদ্দীন আহমদ বলেন, বাদে করিমপুর গ্রামে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে দ্রুত গেিতত পানি প্রবেশ করছে ফসলি জমিতে।

প্রাথমিকভাবে দেখা গেছে ২০ হেক্টর জমির রোপিত আইশ ফসল নিমজ্জিত হয়েছে। কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক ধলাই নদীর পানি বৃদ্ধি ও বাঁধ ভেঙ্গে মানুষজন পানি বন্ধীর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উপজেলা প্রশাসন এ দিকে সতর্কতার সাথে নজরদারী করছে। তিনি আরও যেভাবে অবিরাম বৃষ্টি হচ্ছে তাতে অবস্থার আরও অবনতি হতে পারে।