শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
বন্যায় সবজি খেত বিনষ্ট, কমলগঞ্জে কাঁচা বাজারে আগুন  » «   পাঁচ জনকে পেছনে ফেলে কামরানের মনোনয়ন জয়: নগরীতে আনন্দ মিছিল  » «   সিলেটে দলীয় সমর্থন আদায়ে আ’লীগ-বিএনপি নেতাদের দ্বারে দ্বারে কাউন্সিলর প্রার্থীরা  » «   চুনারুঘাটে রাত পোহালেই আমু চা বাগানের শ্রমিকদের নির্বাচন  » «   সিলেটে পুলিশের সাথে ছাত্রদলের সংঘর্ষ: আটক ১৫  » «   ভারতীয় কাশ্মীরে বন্দুকযুদ্ধ, পুলিশসহ নিহত ৬  » «   আ’লীগের নিজস্ব ভবন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   পাঁচ জেলায় সড়কে প্রাণ গেল ৩২জনের  » «   শুভ জন্মদিন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ: এড শাকী শাহ ফরিদী  » «   আরিফকে মনোনয়ন না দিতে নিজ দলের নেতাকর্মীরা একাট্রা  » «  

চুনারুঘাটে সড়কে খড় দিয়ে কার্পেটিং সংবাদ প্রকাশের পর নতুন করে হচ্ছে মেরামত



চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি:: চুনারুঘাটের শানখলা-দেউন্দি সড়কে খড় বিছিয়ে নিম্নমানের কার্পেটিং শিরোনামে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশের পর কর্তৃপক্ষ নতুন করে সড়কটি মেরামত করছে।

সড়কে কর্মরত সকল শ্রমিক পরিবর্তন করে এবং এলাকাবাসীকে নিয়ে কাজ তদারকির জন্য একটি কমিটি করে পুরাতন কাজ উঠিয়ে নতুন করে সড়ক মেরামত করা হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে সরজমিনে দেখা গেছে, পুরাতন কাজ উঠিয়ে নতুন করে পুরোদমে কাজ চলছে। এতে এলাকাবাসীও খুশি। এলাকাবাসীরা জানান, আমরা চাই ভাল কাজ। কাজ ভাল হলে আমাদের আর কোন অভিযোগ নাই।

সম্প্রতি ১ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার শানখলা-দেউন্দি সড়ক পাকাকরণ শুরু করে স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগ। কাজটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঠিকাদার আমিনুল ইসলামের কাছ থেকে কিনে নেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা কবির মিয়া। সড়কে মেকাডম তৈরী এবং কার্পেটিং করার পর দেখা যায়, কার্পেটিং নি¤œমানের এবং খড়ে ভরা ছিল।

নিন্মমানের কাজ এবং খড় থাকার কারণে এলাকাবাসী বিক্ষোব্ধ হয়ে উঠে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবাল। তিনি নিম্নমানের কাজ বন্ধ করে দেন। এ নিয়ে গত কিছুদিন পূর্বে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে টনক নড়ে কর্তৃপক্ষের।

এলাকার যুবক সেলিম মিয়াকে প্রধান করে গঠিত তদারকি কমিটি বর্তমানে কাজ তদারিক করছে। এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরের তদারকিতে নিয়োজিত উপ-সহকারী প্রকৌশলী আনিসুর রহমান জানান, উক্ত সড়কে এলাকার শত শত মানুষ ধান মাড়াই ও খড় শুকাতো। বৃষ্টিতে খড় পচে যাওয়া কিছু অংশে শ্রমিকরা এসব খড়ের উপরই কার্পেটিং করে ফেলে। এ অবস্থায় পুরাতন কার্পেটিং উঠিয়ে নতুন করে কার্পেটিং করা হচ্ছে। একই সাথে খড় পরিস্কার না করে কার্পেটিং করার কারণে সকল শ্রমিকও পরিবর্তন করা হয়েছে।