শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

গোলাপগঞ্জে দলিল জালিয়াতির ঘটনায় চার আসামী কারাগারে



ডেস্ক রিপোট:: গোলাপগঞ্জে জালিয়াতির ঘটনায় ৪ আসামীকে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতের বিচারক তাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। আসামীরা হলেন, দত্তরাইল গ্রামের আব্দুল মুহিত (মুজিব), আমুড়া গ্রামের বাবুল মিয়ার ছেলে জাহান আহমদ, দক্ষিণ কানিশাইলের ছতিব ও রেহান আহমদ। গোলাপগঞ্জে জাল দলিল তৈরি করে প্রবাসীর জমি আত্মসাতের চেষ্টার অভিযোগে সনত চক্রবর্তীর দায়েরকৃত একটি মামলায় এই আদেশ দেন আদালত। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আদালত আসামীদের কারাগারে প্রেরণের নিদের্শ দেন। গোলাপগঞ্জ থানার তদন্ত প্রতিবেদক আদালতে দাখিলের পর সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়াল ১ম আদালত ৩ মে আসামীদের বিরুদ্ধে সমন জারী করেন এবং ২৪ মে তাদের আদালতে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার আসামীরা আদালতে হাজির হলে শোনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত দলিল জালিয়াতির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রেক্ষিতে তাদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। উক্ত দলিল জালিয়াতির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রেক্ষিতে তাদের কারাগারে প্রেরণের নিদের্শ দেন। উক্ত দলিল জালিয়াতির ঘটনায় সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়ার ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে মামলা দায়ের করেন গোলাপগঞ্জ দত্তরাইল গ্রামের মৃত ছাবিল উদ্দিনের ছেলে প্রবাসী মো. জামাল উদ্দিনের আমমোক্তার নগরীর খুলিয়াপাড়ার বাসিন্দা মৃত সুকুমার চক্রবর্তীর ছেলে সনত চক্রবর্তী (সি.আর মামলা নং- ১৯/২০১৮)। মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জাল দলিল সৃজন করে গোলাপগঞ্জের উক্ত প্রবাসীর মালিকানাধীন জমি আত্মসাত করতে মরিয়া হয়ে উঠে একটি জালিয়াতচক্র। তারা প্রবাসীর জমি রক্ষণাবেক্ষণকারী সংখ্যালঘু আমোক্তারকে শারীরিক নির্যাতন সহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। সনত চক্রবর্তী জানান, তিনি আসামীদের জন্য নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। ঢাকা দক্ষিণে বাসাবাড়ি ভাড়া আদায়ের জন্য সিলেট নগরী থেকে যাতায়াতকালে যেকোনো মূহুর্তে আসামী পক্ষের লোকজন তার ওপর হামলা করতে পারে বলে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এখন বিজ্ঞ আদালত আসামীদের কারাগারে প্রেরণের পর অবশিষ্ট আসামীরা সনত চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে। তারা সনত চক্রবর্তীকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। যে কারনে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। তিনি প্রশাসনের কাছে অবশিষ্ট আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য অনুরোধ জানান।