শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

জগন্নাথপুরের প্রিয়মুখ মানস দা আর নেই, একনজর দেখতে হাজারো জনতার ঢল



মো.শাহজাহান মিয়া, জগন্নাথপুর:: সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রিয়মুখ মানস রায় (৬৪) আর নেই। ২৬ মে শনিবার বেলা প্রায় দেড়টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিলেট রাগিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ২ মেয়ে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিক ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তাঁর মৃত্যুর ২ দিন আগে একটি পা কেটে ফেলা হয়। এরপরও বাঁচানো গেলোনা সবার প্রিয় ও শ্রদ্ধাভাজন মানস দা কে। জগন্নাথপুরের সাংস্কৃতিক অঙ্গন সহ প্রতিটি বিষয়ে জড়িয়ে আছেন মানস দা।

সর্বক্ষেত্রে রয়েছে মানস দা এর ব্যাপক পরিচিতি ও অবদান। মানস রায় উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী জগন্নাথপুর উপজেলা শাখার সভাপতি, খেলাঘর এর সভাপতি ও শিল্পকলা একাডেমির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এবং মানস রায়ের রচিত কয়েকটি নাটক সারা দেশে সারা জাগিয়েছে।

মানস রায়ের গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ থানার জগতপুর গ্রামে। তিনি ১৯৭৬ সাল থেকে জগন্নাথপুর পৌর শহরের বাসুদেব বাড়ি গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মানস রায়ের মৃত্যুতে এক মহী রূহের পতন ঘটল। জগন্নাথপুরের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মানস রায়ের মৃত্যুতে জগন্নাথপুর উপজেলার সর্বত্র শোকের ছায়া বিরাজ করছে।
বিকেলে মানস রায়ের মৃতদেহ জগন্নাথপুর আসার পর স্থানীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে রাখা হলে সর্বশ্রদ্ধেয় মানস দা কে শেষ বারের মতো একনজর দেখতে হাজারো শোকার্ত জনতার ঢল নামে।

এদিকে মানস রায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন পৌর প্রকৌশলী সতীশ গোস্বামী, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র, জগন্নাথপুর বাজারের ব্যবসায়ী হীরা মোহন দেব, প্রজেশ গোপ, প্রদীপ সূত্রধর, ডা. শশী কান্ত গোপ, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের পক্ষে প্রেসক্লাব সভাপতি ডা. নয়ন রায় ও সাধারণ সম্পাদক মো.শাহজাহান মিয়া, জগন্নাথপুর উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর কোষাধ্যক্ষ জুয়েল দাস, মানস রায়ের হাতেখরি অভিনেতা তানভীর আহমদ ইমু, জগন্নাথপুর সংবাদপত্র বিক্রেতা সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য প্রমূখ। তাঁরা প্রয়াত মানস রায়ের স্বর্গীয় আত্মার শান্তি কামনা করেন।