মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেটে জরুরী অবস্থা চলাকালে কারামুক্ত আওয়ামী লীগ নেতাদের স্মৃতিচারণ



২০০৭ সালের ১৪ মে জরুরী অবস্থা চলাকালে বটেশ্বরে একটি সামাজিক অনুষ্ঠান থেকে গ্রেফতার হওয়া সিলেটের আওয়ামী পরিবারের ৪০ নেতাকর্মীদের স্মৃতিচারন উপলক্ষ্যে সোমবার এক মিলন মেলা আয়োজন করা হয়।

গ্রেফতার হওয়ার ১১ বছর পর এই দিন উপলক্ষ্যে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজন করা হয় স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের।

সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হকের সভাপতিত্বে ও মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আসাদুজ্জামান আসাদের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, সহ সভাপতি আব্দুল খালিক, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সৈয়দ আবুল কাশেম, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র, জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক এড. মাহফুজুর রহমান, আজাদুর রহমান আজাদ, এড. আজমল আলী, সৈয়দ শামীম আহমদ, সদরুজ্জামান চৌধুরী প্রিন্স, জগলু চৌধুরী, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীর রশিদ চৌধুরী, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আলম খান মুক্তি, জেলা স্বেচ্ছসেবক লীগের সভাপতি আফসর আজিজ, সহ সভাপতি আজির উদ্দিন, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল বাছিত রুম্মান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি পংকজ পুরকায়স্থ, শাহরিয়ার আলম সামাদ, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিয়াউল হক জিয়া, সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক তানভীর আলম পিয়াস, জবরুল আলম চৌধুরী মাসুম, কামরুল ইসলাম খোকন, মুহিবুর রহমান লাভলু, আরিজ আলী, অজয়, অরুনোদয় পাল ঝলক, এড. ওহিদুর রহমান চৌধুরী, অনুপ দেব, টিপু ওসমানী এড. আনোয়ার, এড. আব্দুল হাদী, এড. জুয়েল, জুবায়ের আহমদ জুয়েল, আবুল কালাম ফনিক প্রমুখ। স্মৃতিচারণ করেন সেলিম রেজা, ছয়ফুল আলম টিপু, আরিজ আলী, লাভলু, শামসুল ইসলাম মিলন।
এছাড়া সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। -বিজ্ঞপ্তি