শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন করলেন হাসিনা ও মোদি  » «   দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ: ওসমানীর সাবেক উপ-পরিচালক ডা. ছালামসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা  » «   কান্দিগাঁ ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা  » «   সাংবাদিকদের সম্মানে ইশা ছাত্র আন্দোলন সিলেট মহানগরীর ইফতার মাহফিল  » «   জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে: দিলদার হোসেন সেলিম  » «   ৬০ পিস ইয়াবা সহ দুই বিক্রেতাকে আটক করেছে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ  » «   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল  » «   কমলগঞ্জে অপরাধ ও মাদকপাচার রোধে বিজিবির সভা, ইফতার মাহফিল  » «   বালাগঞ্জের পল্লীতে যুবক খুনের ঘটনায় মামলা দায়ের  » «   কমলগঞ্জে দরিদ্র চা শ্রমিক সন্তানকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এইচএসসি ভর্তিতে আর্থিক সহায়তা প্রদান  » «  

নারী আইএস’র বন্ধু ভারতের আর্মি, নেভি ও পুলিশ কর্মকর্তারা!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: এবার আইএস জঙ্গিদের এক এজেন্টের সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী ও পুলিশ কর্মকর্তাদের বন্ধুত্বের সন্ধান পেয়েছেন গোয়েন্দারা। হরিয়ানার সিআইডি কর্মকর্তারা ওই নারীর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে অনুসন্ধান চালিয়ে এ তথ্য পেয়েছে বলে জানিয়েছে কলকাতা২৪।

খবরে বলা হয়েছে, কিছুদিন আগে অমৃতা আলুওয়ালিয়া নামে এক নারীর হানিট্র্যাপে পা দিয়েছিলেন ২২ বছরের গৌরব শর্মা। তিনি সাবেক সেনা কর্মকর্তার ছেলে। গৌরবের কাছ থেকে ভারতীয় সেনাদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নেয় ওই নারী। গৌরব শর্মাকে পরে গ্রেফতার করা হয়।

ওই অমৃত আলুওয়ালিয়ার ফ্রেন্ডলিস্ট চেক করতে গিয়েই মাথায় হাত সিআইডি অফিসারদের। তালিকায় রয়েছেন তিনজন কর্নেল, তিনজন মেজর, একজন ক্যাপ্টেন, একজন কমান্ডার, একজন সার্জেন্ট, একজন লে. জেনারেল, একজন ট্রেনি ও জম্মু ও কাশ্মীরের জেল সুপার।

এছাড়াও ওই নারীর ফ্রেন্ডলিস্টে রয়েছে সরকারি অফিসার, রাজনৈতিক নেতা, ব্যবসায়ী, শিক্ষকসহ হরিয়ানার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। ওই আর্মি অফিসাররা হিমাচল প্রদেশ, হরিয়ানা, রাজস্থান, দিল্লি, উত্তর প্রদেশ, পাঞ্জাবসহ বিভিন্ন জায়গায় কর্তব্যরত। তবে তদন্তের স্বার্থে ওইসব অফিসারদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

ধরা পড়ার পর গৌরব শর্মা জানিয়েছেন, ভারতীয় গোপন তথ্যে নজর রেখেছিলেন তিনি। এমনকি ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে সেই তথ্য পাকিস্তানে পাঠিয়েও দিতে পারতেন সহজে। তাকে পাকিস্তান থেকে ১০ লাখ টাকা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছিল। যদিও এখনও পর্যন্ত একটা টাকাও আসেনি।