শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ: ওসমানীর সাবেক উপ-পরিচালক ডা. ছালামসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা  » «   কান্দিগাঁ ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা  » «   সাংবাদিকদের সম্মানে ইশা ছাত্র আন্দোলন সিলেট মহানগরীর ইফতার মাহফিল  » «   জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে: দিলদার হোসেন সেলিম  » «   ৬০ পিস ইয়াবা সহ দুই বিক্রেতাকে আটক করেছে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ  » «   সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের ইফতার মাহফিল  » «   কমলগঞ্জে অপরাধ ও মাদকপাচার রোধে বিজিবির সভা, ইফতার মাহফিল  » «   বালাগঞ্জের পল্লীতে যুবক খুনের ঘটনায় মামলা দায়ের  » «   কমলগঞ্জে দরিদ্র চা শ্রমিক সন্তানকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এইচএসসি ভর্তিতে আর্থিক সহায়তা প্রদান  » «   দিরাইয়ে লুটের মামলার আসামী সালা উদ্দিন জেলহাজতে  » «  

কমলগঞ্জে অন্তসঃত্তা গৃহবধুর গলায় ফাঁস লাগানো মরদেহ উদ্ধার



আসহাবুর ইসলাম শাওন, কমলগঞ্জ থেকে:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের এক অন্তসঃত্ত্বা গৃহবধুর গলায় ফাঁস লাগানো অবস্হায় মরদেহ উদ্ধার করেছে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ।

কমলগঞ্জ থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের চৈতন্যগঞ্জের চঠিয়া এলাকার আবুল মিয়ার স্ত্রী পাচ মাসের অন্তসঃত্ত্বা সাইফুল বেগম (৩৫) গত বুধবার দিবাগত রাত অনুমানিকক আড়াইটার দিকে বাড়ীর পেছনের বারিন্দার চালার মধ্যে গলায় গামছা পেচিয়ে আত্নহত্যা করেন।

বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) সকাল এগারো টায় সংবাদ পেয়ে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি (তদন্ত) মোঃ নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে এসআই আব্দুস শহীদ ও এএসআই তফাজ্জল হোসেন সহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্হলে গিয়ে গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে মায়ের ফাঁস লাগানোর জায়গায় দাড়িয়ে বড় ছেলে শিপু আহমেদ (১২) মা, মা, বলে বিলাপ করছিল।ছেলেটির কান্না দেখে এলাকার পাড়া পড়শীরা শান্তনা দেওয়ার ভাষা যেন হারিয়ে ফেলেছেন।

স্হানীয়রা জানায়,পারিবারিক কলেহের জের ধরেই এটি হত্যা বা আত্নহত্যার এ ঘটনা ঘটতে পারে।

এ ব্যপারে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি (তদন্ত) মোঃ নজরুল ইসলামের সাথে আলাপকালে তিনি জানান,সংবাদ পেয়ে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে আসলে বুঝা যাবে, এটি হত্যা নাকি আত্নহত্য।