সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
নাস্তিক ফতোয়া দিয়ে ফের আলোচনায় এমপি কয়েছ( ভিডিও সহ)  » «   আফগানদের হারিয়ে ফাইনালের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল বাংলাদেশ  » «   প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে সিলেট কওমি মাদরাসা বোর্ডের শুকরিয়া মিছিল  » «   বিশ্বনাথে গোপন বৈঠক কালে ১৭ জামাত নেতা আটক  » «   হোটেল শ্রমিক উইনিয়নের বিক্ষোভ মিছিল  » «   জেলা পরিষদের অর্থায়নে সংযোগ সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন-এড. লুৎফুর রহমান  » «   জগন্নাথপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় ২৫ জনের জামিন হওয়ায় এলাকায় স্বস্তি  » «   বিশ্বনাথে মাজার নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন  » «   সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ফয়জুল মুনির চৌধুরী’র মোটর সাইলেক শোডাউন  » «   চারখাই ত্রিমুখে ‘শহীদ নাহিদ চত্বর’র উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী  » «  

মুজিবনগর দিবসে মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে আলোচনা সভা



ডেস্ক নিউজ:: মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম হাবিবুর রহমান লাইব্রেরি হলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (অর্থ) মিহির কান্তি চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক শিব প্রসাদ সেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী ও আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এম. রবিউল হোসেন।

অধ্যাপক ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী বলেন, ‘১৭ এপ্রিল তথা মুজিবনগর দিবসটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তৎকালীন কুষ্টিয়া জেলার মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে গঠিত অস্থায়ী সরকার বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের একটি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছিল। বাংলাদেশের মাটিতে গঠিত সেই সরকার সহজে ও দ্রুততার সাথে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছিল।’

অধ্যাপক ড. এম. রবিউল হোসেন বলেন, ‘মুজিবনগর দিবসের মর্ম এবং ইতিহাস অধিকতর জানতে হবে। যখন নির্বাচন হয়েছিল, আমরা আনন্দে মেতেছিলাম। ৩ মার্চ গণপরিষদের অধিবেশন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ১ মার্চ তা বাতিল হয়ে যায়। ২৫ মার্চ দিবাগত রাতে গ্রেফতার হন বঙ্গবন্ধু। ১০ এপ্রিল প্রাদেশিক ও কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। ১৭ এপ্রিল শপথ গ্রহণের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু করে মুজিবনগর সরকার।’

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক শিব প্রসাদ সেন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধকে সঠিকভাবে পরিচালনা করার জন্য মুজিবনগরে গঠিত অস্থায়ী সরকার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। পলাশীর প্রান্তরে বাংলার স্বাধীনতা অস্তমিত হয়েছিল। সেই পলাশীর প্রান্তর থেকে প্রায় একশ কিলোমিটার দূরে মেহেরপুরে আবার উদিত হয়েছিল বাংলার স্বাধীনতার সূর্য। মুজিবনগর সরকারের অধীনেই আমরা নয় মাসে স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছিলাম।’

আলোচনা সভায় রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ফজলুর রব তানভীর, ব্যবসা ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. তাহের বিল্লাল খলিফা, মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সুরেশ রঞ্জন বসাক, বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, শিক্ষকবৃন্দ, সহকারি রেজিস্ট্রার খন্দকার মকসুদ আহমদ, জনসংযোগ কর্মকর্তা লোকমান আহমদ চৌধুরী এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।