শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর
ধর্মপাশায় একটি পাগলা কুকুরের কামড়ে ১৫জন আহত  » «   সিলেটে কর্মশালা: দায়িত্বশীল সাংবাদিকতা অপরিহার্য  » «   ছাত্র সমাজের মধ্যে প্রকৃত আদর্শ বিলিয়ে দিতে হবে- মাহবুবুর রহমান ফরহাদ  » «   আবারো ত্রিভুবনে ১৩৯ যাত্রী নিয়ে রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ল মালয়েশিয়ার বিমান  » «   ১২ মাস ভিজিএফ’র চাল ও নগদ অর্থ বিতরণ করে প্রমাণ হয়েছে এ সরকার কৃষি বান্ধব  » «   লন্ডন সিলেট ফ্রেন্ডশীপ অর্গানাইজেশনের মুকিত কে সংবর্ধনা  » «   মৌলভীবাজারে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে  » «   নগরী থেকে রবিউল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি নিখোঁজ  » «   জ্ঞানের রাজ্যে ভ্রমণের জন্য তো কোনো পাসর্পোট ভিসা লাগেনা–প্রণবকান্তি দেব  » «   কৃষি জমি রক্ষার দাবীতে ফতেহপুরবাসীর প্রতিবাদ সভা  » «  

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিল না করতে জগন্নাথপুরে মানববন্ধন



জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিলের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১৫ এপ্রিল রোববার জগন্নাথপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা ভবনের সামনে প্রধান সড়কে মানবন্ধন ও প্রতিবাদসভা অনুষ্ঠিত হয়।

জগন্নাথপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবদুল কাইয়ূমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের যুগ্ম-আহবায়ক শাহ সিরাজ কুতুবী’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রঞ্জিত কান্তি দাস, আবদুল হক, ইলিয়াছ আলী, নরেন্দ্র দাস, শৈতেন্দ্র দাস, আছলম উল্লাহ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহবায়ক আবুল কয়েছ, সদস্য শাহ জামাল, আজিজ মিয়া, গোপাল গোপ, হাবিবুর রহমান, খোকন গোপ, রাসেল মিয়া, নিহার তালুকদার, রিপন মিয়া, মানবেন্দ্র তালুকদার প্রমূখ।

এ সময় জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মো.শাহজাহান মিয়া সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বক্তারা বলেন, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হচ্ছেন বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ। যাদের রক্তের বিনিময়ে এ দেশে স্বাধীন হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সারা দিয়ে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন বীর সেনারা।

তাদেরকে অবশ্যই মূল্যায়ন করতে হবে। তাই মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিল না করতে সেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানানো হয়। পরে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাতিল না করতে জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে স্বারকলিপি প্রদান করা হয়।