শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
এই মুহুর্তের খবর

সিলেটে স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের র‌্যালী, প্রদীপ প্রজ্জ্বলন ও প্রতিবাদ সভা



তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি, রিমান্ডে অমানুষিক নির্যাতনে ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে হত্যার প্রতিবাদে এবং নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে শোক র‌্যালী করেছে সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল।
র‌্যালীটি বুধবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টায় নগরীর মিরাবাজার থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জিন্দাবাজার হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক প্রদীপ প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।
প্রত্যেক নেতাকর্মীরা মোমের বাতি জ্বালিয়ে নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণ করেন ও আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করেন।
পরে শহীদ মিনারে এক প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত বক্তারা বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দিশালায় আটকে রেখে সরকারের সকল অপকৌশল আজ বিফলে পর্যবসিত হচ্ছে। অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসার পর থেকে গুম, খুন ও ক্রসফায়ারের মাধ্যমে হত্যা করেও নেতাকর্মীদের আন্দোলন থেকে দমাতে ব্যর্থ হয়ে মাদার অব ডেমোক্রেসী খ্যাত দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা ও উদ্ভট মামলায় কারান্তরীন রাখা হয়েছে। সরকারের আক্রমনের ধারাবাহিক শিকারে পরিণত হয়েছেন ছাত্রনেতা জাকির হোসেন মিলন। মানববন্ধন কর্মসূচী শেষে বাড়ি ফেরার পথে পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে যায়। কোন মামলা না থাকা স্বত্ত্বেও রিমান্ডের নামে তার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালানো হয়। হাত পায়ের নখ তোলা সহ অসংখ্য শারিরীক নির্যাতনে তার মৃত্যু হয়। নিরীহ জনগণের উপর হায়েনার মতো আক্রমণ চালিয়ে অবৈধভাবে এই সরকার ক্ষমতায় টিকতে পারবেনা জানিয়ে নেতৃবৃন্দরা আরো বলেন, সরকারের অতি দানবীয় প্রত্যেক আক্রমনের সময়োচিত জবাব দেওয়া হবে। বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বে গণআন্দোলনের মাধ্যমে উৎখাত হওয়া সরকারকে হিটলার-মুসোলিনীর ভাগ্যবরণ করতে হবে।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক কাউন্সিলর দিনার খান হাসু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক আজমল হোসেন রায়হান, যুগ্ম আহ্বায়ক মওদুদুল হক মওদুদ, জেলা বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মতিউল বারী খুর্শেদ, জেলা ছাত্রদলের সহ সভাপতি মিফতাউল কবীর মিফতা, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা দীপক রায় প্রমুখ।